মেইন ম্যেনু

ফারিয়ার প্রথম ছবি নকল: স্বীকার করলেন অঙ্কুশ

আজ কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে অঙ্কুশ ও ফারিয়া অভিনীত ছবি ‘আশিকি’। বাংলাদেশের পরিচালক আব্দুল আজিজ ও কলকাতার পরিচালক অশোক পাতি নির্মিত যৌথ প্রযোজনার এ ছবিটি নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। তবুও আশাবাদী অঙ্কুশ- ছবির মুক্তি উপলক্ষ্যে কলকাতার পত্রিকা সংবাদ প্রতিদিনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি ছবিটি ও নায়িকা ফারিয়াকে নিয়ে বলেন নানা কথা, স্বীকার করেন- ফারিয়ার প্রথম ছবি দক্ষিণ ভারতীয় ছবির নকল!

‘আশিকি’ মুক্তি উপলক্ষ্যে কলকাতায় তেমনভাবে ছবির প্রচারণা হয়নি আগে থেকে। দেয়ালে পোস্টারও লেগেছে অনেক দেরিতে। এ নিয়ে অঙ্কুশ বলেন, ‘আমাদের পোস্টার পড়তে একটু দেরি হয়েছে ঠিকই। তার কারণ হল আমার ডেট নিয়ে সমস্যা হচ্ছিল। বাংলাদেশ থেকে ভিসার সমস্যা কাটিয়ে ফারিয়ার কলকাতায় এসে ফোটোশুট করতেও একটু টাইম লেগেছে। তাছাড়া সেন্সর নিয়েও একটু সমস্যা ছিল। তাই সব মিলিয়ে জিনিসটা একটু পিছিয়ে গিয়েছে।’

পুজা উপলক্ষ্যে কলকাতায় মুক্তি পাচ্ছে বড় বাজেটের সব ছবি, প্রতিটি ছবির সাফল্যের সম্ভবনাও থাকে বেশি। তবে পুজার আগেই মুক্তি পেল ‘আশিকি’। নায়ক জানান, বিশ্বকর্মা পুজাতে ছবি মুক্তির কথা আগে থেকেই ঠিক ছিল। ছবিটি সম্পর্কে আশাবাদ ব্যক্ত করতে গিয়ে অঙ্কুশ বলেন, ‘আমি খুবই আশাবাদী এই ছবিটা নিয়ে। এর মধ্যে যা কিছু দক্ষিণের রিমেক হয়েছে তাতে ইমোশনাল কনটেণ্ট কম- অ্যাকশন ছিল, নাচগান ছিল। কিন্তু হৃদয় ছোঁয় না। এই ছবিটা একটা ইমোশনাল জার্নি বলা যায় এবং একই সঙ্গে খুবই মজার একটা মিষ্টি প্রেমের গল্প।’

তবে তিনি স্বীকার করেছেন, ‘আশিকি’ ছবিটি দক্ষিণ ভারতীয় এক ছবির নকল। তবে যুক্তিতে তিনি বলেন, ‘আমি কোনওদিনই রিমেকের বিরুদ্ধে ছিলাম না। কিন্তু বাংলায় রিমেক করলে সেটা এখানকার দর্শকের জন্য মানানসই হতে হবে। আমাদের এমনও ছবি হয়েছে যে, অ্যাকশন দৃশ্যে দক্ষিণে যেমন ছুরি-কাটারি ব্যবহার করা হয় তেমন অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। শুধু ওদের মতো করে ধুতি-লুঙ্গি পরানোটাই বাকি ছিল। এই ছবিটা দেখে কখনওই মনে হবে না ফ্রেম টু ফ্রেম কপি।’

এবার ফারিয়া প্রসঙ্গ- বাংলাদেশের নবাগত নায়িকা ফারিয়ার সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা বলতে গিয়ে অঙ্কুশ বলেন, ‘ফারিয়া বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঞ্চালক। কিন্তু এখানে কাজ করার সময় একদম নতুন নায়িকার মতোই সবকিছু শিখে নিয়েছে। ওর সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা খুবই ভাল।’