মেইন ম্যেনু

ফের অসহায়ের সহায় অনন্ত জলিল

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ঢাকাই ছবির আলোচিত চিত্র নায়ক অনন্ত জলিলের মহানুভবতার কথা সবাই জানে। তিনি একাধারে একজন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক, প্রযোজক, বিশিষ্ট শিল্পপতি – সি আই পি এবং একজন সমাজ সেবক। তার প্রতিষ্ঠিত এজে ফাউন্ডেশন থেকে প্রায়ই সমাজের দুঃস্থ, গরীব ও অসহায় মানুষদের জন্য সহযোগিতার হার বাড়িয়ে দেন। তারই ধারাবাহিকতায় দুঃস্থ রোগীর কৃত্রিম পা সংযোজনে আর্থিকভাবে সহায়তা করলেন অনন্ত জলিল।

প্রচলিত আছে, ‘অনন্ত জলিল একটি নাম যার কাছ থেকে কেউ সহযোগিতার জন্য এসে খালী হাতে কখনও ফিরে যায় না।’ তার সমাজ সেবামূলক কাজের অংশ হিসাবে বর্তমানে তিনি চারটি এতিমখানার সাথে সম্পৃক্ত যেখানে আড়াই হাজার এতিম আছেন। এছাড়া নিজ উদ্যোগে একটি বৃদ্ধাশ্রম নির্মাণ করছেন আর প্রতি নিয়ত বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন সমাজের দুঃস্থ, গরীব ও অসহায় মানুষদের।

সম্প্রতি কুমিল্লার ফরহাদ হোসেন এর পাশে দাঁড়ালেন অনন্ত জলিল। গত ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে এক মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় ফরহাদ হোসেনের দুটি পা ই ভেঙে যায়। ভাঙা দুই পা এর মধ্যে ডান পা কেটে ফেলতে হয় এবং বাম পা এ স্টিলের পাত সংযোজন করা হয়। বর্তমানে তিনি শারিরীক কষ্টের মাঝে দিনযাপন করছে। তার স্বাভাবিক চলাফেরার জন্য উন্নতমানের কৃত্রিম পা সংযোজন করা প্রয়োজন, যা যথেষ্ট ব্যয়বহুল।

সম্প্রতি অনন্ত জলিল ফরহাদ হোসেনের কৃত্রিম পা সংযোজনের জন্য ১,৮০,০০০ টাকা (এক লক্ষ আশি হাজার টাকা) দিয়ে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেন। একই সাথে ফরহাদ হোসেনের সংসদীয় এলাকার মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার তার চিকিৎসার সহযোগিতায় ১,০০,০০০ (এক লক্ষ টাকা) প্রদান করেন।

নামঃ মোঃ ফরহাদ হোসেন, স্থায়ী ঠিকানাঃ গ্রাম – চম্পকনগর, উপজেলা – আদর্শ সদর, জেলা – কুমিল্লা, মোবাইল – ০১৭২৬৫৫৭০৯২। জনতা ব্যাংক, সঞ্চয়ী হিসাব নং – ১২৩২৫/৩, ধর্মপুর শাখা, কুমিল্লা।

এই পঙ্গু রোগীটির চিকিৎসার সহযোগিতায় তার পাশে দাঁড়ানোর জন্য হৃদয়বান ও ধনাঢ্য ব্যক্তিবর্গের প্রতি জানিয়েছেন অনন্ত।

তিনি বলেন, ‘আমি সবসময় চেষ্টা করি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর। আগামীতেও এমন ভালো কাজের ধারাবাহিকতা অব্যহত থাকবে। সেই সাথে আমি আহবান জানাচ্ছি যাদের সামর্থ্য আছে তারাও এমন অসহায়-গরীবদের সাহায্য করবেন।’