মেইন ম্যেনু

ফেসবুকে শিশুদের ছবি ব্যবহারে সতর্কতা

ফেসবুকে অনেকেই নিজের প্রিয় শিশুসন্তানের ছবি আপলোড করেন। কারও আবার প্রোফাইল পিকচার বা কাভার ফটোতেই থাকে সন্তানের ছবি। টাইমলাইজুড়ে থাকে নবজাতক পর্যায় থেকে শুরু করে শিশুর জীবনের ধাপের ছবি। তবে এবার শিশুদের ছবি পোস্ট করা থেকে অভিভাবকদের বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে ফ্রান্সের পুলিশ।

পুলিশের আশঙ্কা, মা-বাবার মনের অজান্তেই পোস্টকৃত ছবিগুলো তাদের সন্তানদের জন্য ভয়ানক বিপদ ডেকে আনতে পারে।
প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোমলমতি শিশুদের সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্যই ফ্রান্সের পুলিশ এই আদেশ জারি করেছে। কারণ অনলাইনে শিশুদের যৌন হয়রানির সংখ্যা বেড়ে চলেছে আশঙ্কাজনকভাবে। আর এর অন্যতম কারণ হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া শিশুদের ছবিগুলো।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অভিভাবকরা শিশুদের যে ছবিগুলো আপলোড করে থাকেন তা অনেক সময় শিশু যৌন হয়রানীকারী ব্যক্তিদের কাছে পৌঁছায়। এর ফলে শিশুদের নিরাপত্তা মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যায়।

এ ধরনের ঝুঁকি থেকে পরিত্রাণ পেতে অভিভাবকদের কিছু নির্দেশনা দিয়েছে ফ্রান্সের তথ্য নিরাপত্তা সংস্থা। এতে বলা হয়েছে, শিশুদের আপলোড করা ছবি যাতে সবাই দেখতে না পারে, সেজন্য ছবি আপলোডের সময় প্রাইভেসি সেটিংসের মাধ্যমে তার দর্শকসংখ্যা সীমাবদ্ধ করে দিতে।

এদিকে, ফেসবুকের প্রকৌশল বিভাগের প্রধান জয় পারিখ একটি ব্লগপোস্টে জানিয়েছেন, ফেসবুক খুব শিগগিরই একটি ফিচার তৈরি করতে যাচ্ছে, যেটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে শিশুদের ছবি আপলোড করার সময় অভিভাবকদের প্রাইভেসির ব্যাপারে সতর্ক করে দেবে।

পারিখ জানান, ‘আমি যদি আমার সন্তানের পার্কে খেলারত অবস্থার কোনো ছবি দুর্ঘটনাবশত ‘পাবলিক’ করে আপলোড করি তখন এই ফিচার আমাকে বলবে; একটু অপেক্ষা করুন। এটি আপনার শিশুসন্তানের ছবি, সাধারণত এ ধরনের ছবি শুধু আপনার পরিবারের সদস্যরাই দেখতে পারে, আপনি যা করছেন সে ব্যাপারে কি আপনি নিশ্চিত?