মেইন ম্যেনু

ফেসবুক লাইভে সাপের কামড় খেয়ে আত্মহত্যা! (ভিডিও)

প্রিয় স্ত্রী তাকে ত্যাগ করেছে। সেই শোকে স্বামী এক ভয়ানক কাজ করে বসলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক’এর লাইভ ভিডিওতে নিজের পোষা সাপের কামড় খেয়ে আত্মহত্যা করে বসেন। রাশিয়ার ওই ব্যক্তির নাম আরসলান ভালিভ। সর্পবিশেষজ্ঞ হিসেবেই পরিচিত তিনি। আর যে সাপের কামড় খেয়ে ইহকাল ত্যাগ করেন সেটি ভয়ানক বিষাক্ত ‘ব্ল্যাক মাম্বা’।

ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়, লাইভেই ভালিভ দর্শকদের দেখান সাপ তার হাতে কামড় বসাচ্ছে। এসময় আরসলান বলেন, ‘এই খবরটা কাটিয়াকে দিও। বলে দিও, আমি তাকে খুব ভালোবাসতাম।

এর আগে গত ২১ সেপ্টেম্বর অপর এক ভিডিও’তে প্রিয়তমা স্ত্রী ‘কাটিয়া’ প্যাটিঝ কিনারের সঙ্গে বিচ্ছেদের ঘটনায় নিজের দুঃখের কথা জানান আরসলান। যদিও সে তার স্ত্রীকে মারধর করেছিলেন বলে অভিযোগ আছে।

সাপের কামড়ের পর ধীরে ধীরে আরসলান ক্যামেরার দিকে হাত বাড়িয়ে দেন। আর বলেন, ‘খুব সুন্দর, না? ওহ্, বিশ্বাস করতে পারছি না। এটাই আমার সঙ্গে ঘটছে।’

ফেসবুক লাইভে স্ত্রীর ফোন নম্বরও দেন আরসলান। তার আগে তিনি বলেন, ‘আমি মরে যাচ্ছি! বিদায়, কাটিয়াকে একবার দেখতে পেলে ভালো লাগত।’ এসময় তিনি বলে ওঠেন, ‘আরে, আমি তো কাঁপছি।’

ভিডিওটিতে ক্রমেই আরসলানের শরীর খারাপ হতে দেখা যায়। তার শ্বাস-প্রশ্বাস দ্রুত হতে থাকে এবং চোখ লাল বর্ণ ধারণ করে। দেখা যায়, তার হাতটাও অবশ হয়ে গেছে।

ভিডিওটি দেখতে পেয়ে সর্পবিদের এক ফেসবুক বন্ধু অ্যাম্বুলেন্সে খবর দেন। এরপর তাকে বাড়ি থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে। বিষ শরীরে ছড়িয়ে যাওয়ায় তাকে আর বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়, আরসলান আত্মহত্যা করতে চাননি। কারণ, আরসলান প্রকাশ্যেই স্ত্রীর কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন। কিন্তু তার স্ত্রী বিচ্ছেদের পর নতুন এক সম্পর্কে জড়িয়ে যান। এতে আরসলান খুবই দুঃখ পান।

এখন আত্মহত্যায় প্ররোচনার দায়ে সাবেক স্ত্রীর বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ দায়ের করা যায় কিনা তা ভেবে দেখছেন নিহতের স্বজনেরা।






মন্তব্য চালু নেই