মেইন ম্যেনু

ফ্রান্সে জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানে হামলা, নিহত ৮০

ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলের নিস শহরে বৃহস্পতিবার রাতে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে একটি লরি দিয়ে হামলা চালানোর ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৮০ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো শতাধিক।

দেশটির সরকারি কর্তৃপক্ষ এই ঘটনাকে একটি সন্ত্রাসী হামলা বলে ধারণা করছে । তবে এখনো পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী এ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ঐতিহাসিক বাস্তিল দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিস শহরে আতশবাজি প্রদর্শনী চলছিল। এসময় উপস্থিত দর্শকদের ওপর ২৫ টনের একটি লরি উঠে যায়। ফলে ঘটনাস্থলেই অনেক মানুষ মারা যায়। লরি চালককে পুলিশ গুলি করে হত্যা করেছে। গাড়িটির ভেতর থেকে বন্দুক ও গ্রেনেড উদ্ধার করা হয়েছে।

নিস শহরের প্রসিকিউটর জিন মিশেল প্রিত্রে জানিয়েছেন, লরিটি বিশাল জনসমাগমের ওপর উঠিয়ে দেওয়ার পর দুই কিলোমিটার চালিয়ে যাওয়া হয়। এতে অন্তত ৭৭ জন নিহত হয়েছে এবং শতাধিক মানুষ আহত হয়েছে। এ হামলার ঘটনায় এখনো কেউ দায় স্বীকার করেনি। তবে সন্ত্রাসবাদী বিরোধী তদন্ত সংস্থার হাতে এ হামলার তদন্তভার অর্পণ করা হবে।

ফ্রান্সের গণমাধ্যমের কাছে প্রত্যক্ষদর্শীদের কয়েকজন দাবি করেছেন, সেখানে তারা গুলির শব্দও শুনতে পেয়েছেন। যদিও এই তথ্য যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

শহরটির একজন বাসিন্দা বলছেন, আমরা কয়েকটি গুলির শব্দও শুনতে পারি। প্রথমে আমরা ভেবেছিলাম যে, সেগুলো হয়তো আতশবাজির শব্দ। কিন্তু সবাইকে দৌড়ে পালাতে দেখে আমরাও আতঙ্কিত হয়ে পড়ি। পরে আমরা একটি হোটেলে আশ্রয় নেই।

সামাজিক মাধ্যমে এই ঘটনার বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশ হয়েছে। তাতে দেখা যায়, অসংখ্য মানুষ আতঙ্কিত হয়ে শহরের রাস্তা ধরে ছুটে পালাচ্ছে। টুইটারের কয়েকটি ছবিতে দেখা গেছে, অনেক মানুষ রাস্তার উপর পড়ে রয়েছে।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদ হামলার খবর জানতে পেরে দক্ষিণের শহর অ্যাভিগনন থেকে দ্রুত প্যারিসের পথে রওনা দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, মাত্র আট মাস আগে প্যারিসো চালানো সন্ত্রাসী হামলায় ১৩০ জন নিহত হয়েছিল। সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে।