মেইন ম্যেনু

ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সম্মেলন পণ্ড, আহত ১০

প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সম্মেলন পণ্ড হয়েছে। ফ্রান্স পুলিশের সহায়তায় সম্মেলন স্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ফ্রান্স ও ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে রোববারের এ সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ ১০ জন আহত হয়েছেন।

বহু প্রতীক্ষিত ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সম্মেলন দীর্ঘ ৬ বছর পর গত ৮ মে নির্ধারিত হয়। দুপুর ১২ টায় ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সম্মেলন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও শুরু হয় বিকেল ৪টায়। সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগের নেতারা হলে প্রবেশ করা মাত্রই প্রায় এক হাজার নেতাকর্মী স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে তুলেন পুরো হল।

প্রথমে সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত নেতাদের মঞ্চে আসন গ্রহণ করেন। এর পর স্বাগত বক্তব্য দেন ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমদ সেলিম।

ফ্রান্স আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মঞ্চের ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত নেতাদের পরিচয় করিয়ে দেন। গ্রীস আওয়ামী লীগ সভাপতি মান্নান মাতুব্বর, সাধারণ সম্পাদ বাবুল হাওলাদার সহ অন্যান্যদের পরিচিতির এক পর্যায়ে দুই সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন কয়েছ ও লিটন খানের সমর্থক স্লোগান দেয়া শুরু করলে উত্তপ্ত হয়ে উঠে পুরো হল। শুরু হয় চেয়ার ছোড়াছোড়ি, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া। প্রায় এক ঘণ্টাব্যাপী এই সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পাঁচজনকে আটক করে

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে রাত ৩টা ৩০ মিনিটে নবটেল হোটেলে সাংবাদিকদের সামনে প্রেস ব্রিফিং করেন সর্ব ইউরোপীয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি শ্রী অনিল দাশ গুপ্ত এবং সাধারণ সম্পাদক এম এ গনি। এ সময় তারা ফ্রান্স আওয়ামী লীগের মহসিন উদ্দিন খান লিটনকে সভাপতি, দিলওয়ার হোসেন কয়েছকে সাধারণ সম্পাদক, মঞ্জুরুল হাসান সেলিমকে সিনিয়র সহ-সভাপতি, সুব্রত ভট্টাচার্য্য শুভকে সহসভাপতি করে নতুন কমিটি ঘোষণা করেন এবং আগামী এক মাসের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করার নির্দেশনা দেন।