মেইন ম্যেনু

বছরের শুরুতেই সুসংবাদ পেলেন সাকিব

দাপটের সঙ্গে ২০১৫ সালকে বিদায় জানিয়েছে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি সাফল্য পাওয়া বছরটিতে সাকিব আল হাসানও ছিলেন অন্যান্যদের মত উজ্জ্বল। ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের পাশাপাশি সাকিব আল হাসানের পরিবারে গত বছর যুক্ত হয়েছে নতুন সদস্য। বাবা হওয়ার স্বাদ পেয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে আছেন সাকিব। স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশিরের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের টাইম স্কয়ারে বর্ষবরণ করেছেন। সেখানেই বর্ষবরণের প্রথম প্রহরে সুসংবাদ শুনতে পান তিনি। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) এর দল কলকাতা নাইট রাইডার্সি এবারও সাকিবকে দলে রেখে দিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো এ খবর প্রকাশ করে।

২০১১ সাল থেকে শাহরুখ খানের দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলছেন সাকিব। ২০১৬ সালেও সাকিব কলকাতার জার্সি গায়ে খেলবেন। বৃহস্পতিবার নতুন মৌসুমের খেলোয়াড় ছেড়ে দেওয়া ও রেখে দেওয়ার তালিকা প্রকাশ করে আইপিএল কর্তৃপক্ষ। কলকাতা নাইট রাইডার্স নিজেদের দশ ক্রিকেটারকে ছেড়ে দিয়েছে। এদের মধ্যে বিদেশি ক্রিকেটার হলেন প্যাট কামিন্স, রায়ান টেন ডেসকাট, জেমস নিশাম, আজহার মাহমুদ ও জোহান বোথা। সাকিবসহ মোট ১৫ জনকে রেখে দিয়েছে কেকেআর। আর ভারতের বাইরের আছেন ৬ জন। রেখে দেওয়া বিদেশি ক্রিকেটাররা হলেন আন্দ্রে রাসেল, ব্রাড হজ, ক্রিস লিন, মর্নে মরকেল ও সুনিল নারিন।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের জার্সিতে সাকিব আল হাসান বরাবরই ছিলেন উজ্জ্বল। ২০১১ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত কেকেআরের জার্সিতে সাকিব খেলেছেন ৩২ ম্যাচ। লেট অর্ডারে ব্যাটিং করে ২৪ ইনিংসে ৩৮৩ রান করলেও বোলিংয়ে সাকিব নিজের কারিশমা দেখিয়েছেন। নিয়েছেন ৩৮ উইকেট। তিন বছরে কেকেআর দুবার আইপিএলের শিরোপা জিতেছিল। দুবারই সাকিবের পারফরম্যান্স ছিল দেখার মত।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরপরই ৯ এপ্রিল আইপিএল শুরু হবে। এর আগে সাকিব খেলবেন এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি ও পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) এ। ঘরের মাঠে খেলবেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। সব মিলিয়ে নতুন বছরের প্রথম পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টির আমেজেই থাকবেন বিশ্বসেরা তারকা সাকিব।