মেইন ম্যেনু

বছরে আর্সেনিকে মরছে ৪৩ হাজার মানুষ

বাংলাদেশের আর্সেনিক সমস্যা ১০ বছর আগে যে অবস্থায় ছিল, এখনো সে অবস্থায় রয়েছে। প্রায় দুই কোটি মানুষ এখনো আর্সেনিক যুক্ত পানি পান করছে। এ ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হচ্ছে সরকার। এক রিপোর্টে এসব তথ্য তুলে ধরেছে যুক্তরাষ্ট্রভিক্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

মূলত রাজনৈতিক কারণে এই সমস্যার সমাধান হচ্ছে না বলেও রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে সরকারি কর্মকর্তারা এ তথ্যের ব্যাপারে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছে বলেও ওই রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

বুধবার প্রকাশিত ১১১ পৃষ্ঠার একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

‘নেপোটিজম অ্যান্ড নেগলেক্ট: দ্য ফেইলিং রেসপন্স টু আর্সেনিক ইন দ্য ড্রিংকিং ওয়াটার অব বাংলাদেশেজ রুরাল পুওর’(স্বজনপ্রীতি এবং অবহেলা: বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলের খাবার পানিতে আর্সেনিক প্রতিরোধে ব্যর্থ প্রচেষ্টা) শিরোনামে বলা হয়েছে, আর্সেনিকের বিষয়টি আন্তর্জাতিক নজরে আসার প্রায় ২০ বছর পরেও আর্সেনিকযুক্ত পানি পান করছে বাংলাদেশের মানুষ, বিশেষ করে গ্রামের মানুষ।

এতে আরো বলা হয়, প্রায় দুই কোটি মানুষ আর্সেনিক ঝুঁকির ভেতর রয়েছে। প্রতিবছর ৪৩ হাজার মানুষ আর্সেনিকজনিত রোগে মারা যাচ্ছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, দেশের ৬৫ হাজার মানুষ আর্সেনিকজনিত রোগে ভুগছে। তবে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ মনে করে, প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়ে অনেক বেশি।