মেইন ম্যেনু

বন্ধুর পুরুষাঙ্গ কর্তন করল বন্ধু! কিন্তু কেন?

ছোট থেকে একসঙ্গে এতগুলো দিন পার করে এসেছেন তাঁরা! আর, এই সে দিন কি না জানা গেল একজনের চেয়ে অন্যের পুরুষাঙ্গটা বড়!

এবং, সেখানেই হল বিপদ! জানা মাত্রই স্রেফ হীনম্মন্যতা থেকে ৪৭ বছরের বন্ধুর পুরুষাঙ্গ কুড়ুলের এক কোপে কেটে নিলেন বছর বাহান্নর প্রৌঢ়। ঘটনাটি ঘটেছে রাশিয়ার বশকর্তোস্তান গ্রামে।

পুলিশ জানিয়েছে, যে দিনের ঘটনা, সে দিন পুরনো অভ্যেস মতো দুই বন্ধু বসে বসে গল্প করছিলেন একটি পাব-এ। চলছিল মদ্যপান। তার মাঝেই আচমকা শুরু হয় পুরুষাঙ্গের দৈর্ঘ্য-সংক্রান্ত প্রতিযোগিতা!

অদ্ভুত ব্যাপার, তাঁর পুরুষাঙ্গের দৈর্ঘ্য যে বন্ধুর চেয়ে ছোট, এটা কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি ওই মদ্যপ প্রৌঢ়। প্রথমে তিনি একচোট গালাগালি করেন বাল্যবন্ধুকে। তার পর উঠে পড়েন টেবিল ছেড়ে। বেরিয়ে যান প্রায় ফাঁকা পানশালা থেকে। একটু পরেই ফিরেও আসেন একটি কুড়ুল নিয়ে। কুড়ুলটি দিয়ে বন্ধুর মাথায় আঘাত হানেন! তিনি মাটিতে পড়ে গেলে এক কোপে কেটে নেন বন্ধুর পুরুষাঙ্গ।

পুলিশ আপাতত ওই প্রৌঢ়কে জেলে নিয়ে গিয়েছে। ঘটনাটির তদন্ত করছে তারা। জানা গিয়েছে, দোষী সাব্যস্ত হলে ৮ বছরের জন্য জেল হতে পারে ওই ব্যক্তির! সুত্র-সংবাদ প্রতিদিন