মেইন ম্যেনু

বন্ধু আগে, না স্বামী?

বলিউডের মাধ্যমে গড়ে ওঠা করণ জোহর-কাজলের ২৫ বছরের বন্ধুত্বের সম্পর্ক বেশ বড়সড় ধাক্কা খায় গত বছর। ছবি মুক্তি নিয়েই যত গোলমাল। করণ জোহর ও কাজলের স্বামী অজয় দেবগণের ছবি মুক্তি পেয়েছিল একই সময়ে। বক্স অফিস দৌড়ে করণের ছবি ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ১০০ কোটির ক্লাবে ঢুকলেও অজয়ের ‘শিবা’ ছবিটি তেমন একটা ভালো করেনি।

ছবির মুক্তির তারিখ নিয়ে করণের ওপর অজয়ের পাশাপাশি নাখোশ ছিলেন কাজলও। তারা চাইছিলেন করণ ছবি মুক্তির তারিখ পরিবর্তন করুক। কিন্তু করণ তা করেননি। অভিনয়ের পাশাপাশি ‘শিবা’ ছবিটির পরিচালক, প্রযোজক ছিলেন অজয় নিজেই। তাই বেশ বড় রকম আর্থিক ক্ষতির মুখোমুখি হতে হয় তাকে।

এরই সূত্র ধরে করণ-কাজলের সম্পর্ক তিক্ত হয়ে ওঠে। বন্ধ হয় মুখ দেখাদেখিও। কিন্তু কেউ এই ভগ্নপ্রায় সম্পর্ক নিয়ে মুখ খোলেননি। সম্প্রতি নিজের ‘দ্য আনসুইটেবল বয়’ বইতে এ নিয়ে বিস্তারিত লিখেছেন করণ জোহর। নিজ থেকেই জানিয়েছেন, কাজলের সঙ্গে তার কথা বন্ধ হয়ে গেছে। তবে সেটা কাজলের স্বামীর জন্যই। বন্ধুর চেয়ে কাজল স্বামীকেই বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করেছেন। আর এতেই নাকি বেশি ব্যথা পেয়েছেন তিনি।

করণ আরও লিখেছেন, ২৫ বছর দীর্ঘ বন্ধুত্বের সম্পর্ক তিনি ধরে রাখতে চাইলেও কাজল আগ্রহ দেখাননি। তাই তিনি নিজেও আগ্রহ হারিয়েছেন।

করণের এসব বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় কাজল কী বলেছেন তা জানা যায়নি। তবে অজয় দেবগন টুইট করেছেন, ‘এসব পুরোনো গালগল্প না ছাপার জন্য অনুরোধ রইল। উত্তরটা ‘সময়ের’ ওপরই নির্ভর করে, মনে আছে নিশ্চয়ই?’

অনেকে অজয়ের এ টুইটকে ইঙ্গিতবাহী মনে করছেন। অভিযোগ ছিল, ‘শিবা’ ছবির ইমেজকে ক্ষতিগ্রস্থ করতে কামাল আর খানকে ঘুষ দিয়েছিলেন করণ। যাতে ছবিটি ব্যবসা করতে না পারে। অজয় হয়তো সেটাই মনে করিয়ে দিতে চাইছেন।