মেইন ম্যেনু

বরযাত্রীদের ৩ ঘণ্টা দাঁড় করিয়ে পরীক্ষা দিলেন নববধূ

পরীক্ষার জন্য বরযাত্রীকে রাস্তায় তিন ঘণ্টা দাঁড় করিয়ে রেখে পরীক্ষা দিলেন এক শিক্ষার্থী। এতে শ্বশুরবাড়ি যাওয়াও তিন ঘণ্টা পিছিয়ে দেয়া হয়। এই অসম্ভব কাণ্ড করে দেখালেন ভারতের রাজস্থান রাজ্যের তরুণী সন্তোষ প্রজাপত।

তিনি কনের সাজেই বসলেন বিএ পরীক্ষায়। পরীক্ষা শেষ হলো। তারপর সন্তোষ রওনা দিলেন শ্বশুরবাড়ির পথে।

রাজস্থানের বালেসার প্রদেশের বাসিন্দা সন্তোষ। বিয়ের পরদিন ছিল তার বিএ পরীক্ষা। আগে থেকেই বাবা মাকে বলে রাখলেন তিনি। কোনোমতেই পণ্ড হতে দেবেন না সারা বছরের পরিশ্রম। বিয়ে করে পরীক্ষায় তিনি বসবেনই। অনেক বোঝানোর পরে রাজি হলেন মা-বাবা। এরপর বহু কষ্টে রাজি করানো হলো হবু স্বামী ওমারাম এবং তার বাড়ির লোককে।

যথাসময়ে বিয়ে হলো। পরদিন বর এবং বরাতি দাঁড়িয়ে থাকল। কনের সাজেই সালঙ্কারা সন্তোষ চললেন পরীক্ষার হলে। নির্ধারিত তিন ঘণ্টা ধরে বিএ ফার্স্ট ইয়ারের পরীক্ষা দিলেন। তারপর ফিরে এসে বিদায় পর্বের পরে রাঙা পায়ে চললেন নতুন জীবনের দিকে।

এ এক অসম্ভব কাণ্ড করে দেখালেন ভারতের রাজস্থান রাজ্যের তরুণী সন্তোষ প্রজাপত। ঘটনাটি ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃিষ্ট করেছে।