মেইন ম্যেনু

বরিশাল ভার্সিটির এক ছাত্রলীগ নেতাকে মারধর…

জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদ সেররিয়াবাত কর্তৃক বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস সংলগ্ন ছাত্রাবাস থেকে এক ছাত্রলীগ নেতাকে তুলে নিয়ে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র তৌফিক ওমরকে তুলে নিয়ে মারধর করার দেড় ঘন্টা পর ছেড়ে দেয়া হয়। এনিয়ে ভার্সিটির ক্যাম্পাস থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে নগরীর সোহেল চত্বরস্থ আ’লীগ কার্যালয়ে এসে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে সাধারন শিক্ষার্থীরা।

ছাত্রলীগের ভার্সিটি শাখার নেতা ফিরোজুল ইসলাম নয়ন বলেন, অতিসম্প্রতি জেলা ছাত্রলীগের একটি অনুষ্ঠানে সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাকের অনুসারী হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী অংশগ্রহন করেন। এজন্য ওই কর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তৌফিক ওমর।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাজ্জাদ সেরনিয়াবাতের নেতৃত্বে ববির অস্থায়ী ক্যাম্পাস সংলগ্ন ব্রাউন কম্পাউন্ড ছাত্রাবাস থেকে তৌফিককে তুলে নেয়া হয়। নগরীর কলেজ এভিনিউ এলাকায় তাকে (তৌফিক ওমরকে) মারধর করে দেড় ঘন্টা পর ছেড়ে দেয়া হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং উপযুক্ত বিচারের দাবিতে সাধারন শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সাজ্জাদ সেরনিয়াবাত বলেন, ছাত্রলীগ নেতা তৌফিককে তুলে নেয়া বা মরধর করার কোন ঘটনা ঘটেনি। এটা একটি পক্ষের অপপ্রচার। তাকে কেবল জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মো. সাখায়ত হোসেন বলেন, বিষয়টি ছাত্রলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল। ক্যাম্পাসে উত্তেজনার খবর পেয়ে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনা হয়েছে।