মেইন ম্যেনু

বর্ধিত বেতন-ফি আদায় বন্ধের নির্দেশ

অনুমোদন না নিয়ে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মাসিক বর্ধিত বেতন ও অন্যান্য ফি আদায় না করার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

রোববার বিকেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ ব্যাপারে একটি আদেশ জারি করা হয়েছে। এ বিষয়ে সরকার শিগগিরই প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করবে বলে অফিস আদেশে জানানো হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মুহ. সাইফুল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আদেশে বলা হয়, লক্ষ্য করা যাচ্ছে বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে মাসিক বেতন ও অন্যান্য ফি সরকারি নির্দেশনা ব্যতিরেকে বর্ধিত হারে আদায় করা হচ্ছে। এর ফলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড (মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডি ও ম্যানেজিং কমিটি) প্রবিধানমালা অনুযায়ী সরকারের নির্দেশনা সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্যদকে বেতন ও ফি’র হার নির্ধারণ করতে হবে বলে আদেশে জানানো হয়।

‘এ প্রেক্ষাপটে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের বর্ধিত বেতন ও অন্যান্য ফি আদায় অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সব প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দেওয়া হলো।’ বেতন-ফি নির্ধারণের বিষয়ে সরকার শিগগিরই নির্দেশনা দেবে বলে আদেশে উল্লেখ হয়েছে।

প্রসঙ্গত, নতুন বেতন কাঠামোতে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়ার যুক্তি দেখিয়ে ঢাকা ও চট্টগ্রামের অধিকাংশ বেসরকারি স্কুল-কলেজে শিক্ষার্থীদের বেতন ব্যাপক হারে বাড়ানো হয়। এর প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন অভিভাবকরা।

রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার, ভিকারুননিসা, মতিঝিল আইডিয়ালসহ বেশ কিছু বিদ্যালয়ের অভিভাবকেরা প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছেন। চট্টগ্রামেও অভিভাবকরা সংহতি সমাবেশ করে বর্ধিত বেতন বাতিলের দাবি জানিয়েছেন। অভিভাবকদের পক্ষ থেকে শিক্ষামন্ত্রী ও জেলা প্রশাসক, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের চেয়ারম্যান এবং জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপিও দেওয়া হয়েছে।