মেইন ম্যেনু

বলতে পারেন কোন প্রাণি মুখ দিয়ে মূত্রত্যাগ করে?

আমাদের জানামতে প্রত্যেক প্রাণিরই মূত্রত্যাগ করার জন্য একটা বিশেষ অঙ্গ আছে। কিন্তু এমন কথা হয়তো এর আগে কেউ শোনেননি যে, কোনো প্রাণি মুখ দিয়ে মূত্রত্যাগ করে! যদি এর আগে না শুনে বা জেনে থাকেন তাহলে আজ জানতে পারবেন কি সেই প্রাণি? এমন কথা জানা পর হয়তো নাক-মুখ সিটকে বলবেন, ‘ছি! ছি!, এমন প্রাণিও কি এই পৃথিবীতে আছে!’

ছি! ‍ছি! করলেও সেই অদ্ভুত প্রাণিকে অস্বীকার করার কোনো উপায় আমাদের নেই। কারণ মহান আল্লাহ তাঁর সৃষ্টি কুলের মাঝে ১৮ হাজার মাখলুকাত সৃষ্টি করেছেন। আর সেই প্রাণিকুলের মাঝে এটিও একটি প্রাণি। তবে এতদিন যারা এই কথাটি জানতে পারেননি তাদের জন্য প্রাণিবিজ্ঞানীরা এই তথ্যটি জানিয়েছেন যে, চীনের নরম খোলসের সামুদ্রিক কচ্ছরা মুখ দিয়েই মূত্রত্যাগ করে!

ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ সিঙ্গাপুরের বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন Pelodiscus sinensis জাতের কচ্ছপদের মাথায় মাছের ফুলকার মতো দেখতে এমন একটি অঙ্গ থাকে। এই অঙ্গটিকে দেখতে অনেকটা লাঠির মতো, তারা অঙ্গটি দিয়ে মূলত শ্বাস-প্রশ্বাসের কাজ করে থাকে। কিন্তু এর কার্যক্রম পুরোপুরি ফুলকার মত নয়। যা দিয়ে কচ্ছপ শ্বাস-প্রশ্বাসের কাজ করেবে।

গবেষকরা গবেষণার সহায়তার জন্য এই জাতের কিছু জীবন্ত কচ্ছপকে প্রায় ৬ দিন পানিতে ডুবিয়ে রাখেন। তারপর পরীক্ষা করে দেখলেন পানিতে ইউরিয়ার পরিমাণ মাত্র ৬%। তবে তারা অবাক হন যে এই ইউরিয়া নির্গত হচ্ছে তাদের মাথার ওই ফুলকার মত অঙ্গ থেকে। তারপর গবেষকরা পানি থেকে তুলে কচ্ছপদের একটা কাদায় ভরপুর ডোবার ভেতরে ছেড়ে দিলেন। কাদার মধ্যে হাবুডুবু খেতে থাকা কচ্ছপগুলো তাদের মুখে লেগে থাকা কাদা ধুয়ে পেলছে।

অবশ্য তাদের মুখের ওপরে যে লাঠির মতো একটি দণ্ড আছে তা থেকে পানি বের করে মুখ ধুয়ে নিচ্ছে! তাদের মুখ থেকে বাহির হওয়া সেই পানি পরীক্ষা করে দেখা গেল তাতে ইউরিয়ার পরিমাণ আগের চেয়ে প্রায় ৫০ গুণ বেশি। আসলে ওটা পানি ছিল না। ওটা ছিল কচ্ছপের মূত্র!



« (পূর্বের সংবাদ)