মেইন ম্যেনু

বলিউড তারকাদেরও পিছনে ফেলে দিলেন কপিল শর্মা!

কালারস চ্যানেলে ‘কমেডি নাইটস উইথ কপিল’ শেষ হতে না হতেই কপিল শর্মাকে প্রায় লুফে নিয়েছিল সোনি। এতবড় ব্লকবাস্টার কামব্যাক বহু টেলি-তারকার কপালেও জোটেনি। আর কী আশ্চর্য, কপিল যেন সোনা, যাঁকে ছুঁলেই চড়চড় করে বাড়ে টিআরপি। আর টিআরপি বাড়লে স্বভাবতই বাড়বে পারিশ্রমিক। হিন্দি টেলিভিশনের সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেতা-অভিনেত্রীরা হরে-দরে প্রতি এপিসোডের জন্য ১ লক্ষ টাকা থেকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পারিশ্রমিক নিন। কিন্তু কপিল শর্মা তাঁর শোয়ের প্রতি এপিসোডের জন্য যত টাকা পান তা অকল্পনীয়!
শুধু তিনি নন, তাঁর সহ-অভিনেতারাও প্রতি এপিসোডের হিসেবে প্রত্যেকে প্রচুর টাকা পেয়ে থাকেন—

১. রশেল রাও (৩ লক্ষ থেকে ৪ লক্ষ টাকা)
২. চন্দন প্রভাকর (৪ লক্ষ টাকা)
৩. সুমনা চক্রবর্তী (৬ লক্ষ থেকে ৭ লক্ষ টাকা)
৪. কিকু সারদা (৫ লক্ষ থেকে ৭ লক্ষ টাকা)
৫. আলি সাগর (৫ লক্ষ থেকে ৭ লক্ষ টাকা)
৬. নভজ্যোত সিং সিধু (৮ লক্ষ থেকে ১০ লক্ষ টাকা এবং তাও শুধু তাঁর সিগনেচার ‘গুরু’ হাসির জন্য)

এবার দেখা যাক কপিল কত টাকা পান। এই শোয়ের মোট আটটি এপিসোড টেলিকাস্ট হয় প্রতি মাসে এবং জানা গিয়েছে তার জন্য প্রতি মাসে কপিল শর্মার পে-চেক দাঁড়ায় প্রায় ৫ কোটি টাকা। অর্থাৎ প্রতি এপিসোডের জন্য কপিল শর্মা আয় করেন ৫০ লক্ষ থেকে ৬০ লক্ষ টাকা। অর্থাৎ এই হিসেবে চললে বছরে তাঁর গড় আয় দাঁড়াচ্ছে ৬০ কোটি টাকা। বলিউডের বহু তরুণ ফিল্মি তারকারাও এই বিপুল পরিমাণ টাকা রোজগার করেন না। আর এইভাবে চললে অচিরেই বড় পর্দার সুপারস্টার নায়ক-নায়িকাদের আয়কে ছুঁয়ে ফেলবেন কপিল!
ভানু বন্দোপাধ্যায় বা তুলসী চক্রবর্তীর মতো বাংলার দিকপাল কমেডিয়ানরা কোনওদিন স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেননি যে একজন কৌতুক অভিনেতা এত টাকা রোজগার করতে পারেন।