মেইন ম্যেনু

বলিউড তারকারা যখন লেখক

বলিউড তারকারা শুধু অভিনয়েই ব্যস্ত থাকেন না, নিজেদের জীবনের নানা ব্যস্ততার ফাঁকে লেখক সত্ত্বার আবির্ভাবও ঘটান। যে কারণেই একাধিক নায়ক নায়িকাই নিজেদের চমৎকার লেখনী আবদ্ধ করেছেন বইয়ের পাতায়। আজকের প্রতিবেদনে থাকছে তেমন কিছু অভিনেতা অভিনেত্রীর লেখা বইয়ের পরিচয়।

সন্তান লালন পালনের টিপস নিয়ে হাজির হয়েছেন এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সোনালী বেন্দ্রে। তাঁর এই বইয়ের নাম ‘দ্য মডার্ন গুরুকুল: মাই এক্সপেরিয়েন্স উইথ প্যারেন্টিং’। ঐতিহ্য এবং আধুনিকতার সংমিশ্রণে কি করে নিজের সন্তানকে মানুষ করা যাবে, সেই ব্যাপারগুলোই বইয়ে তুলে ধরেছেন এই অভিনেত্রী। দেখানো হয়েছে এই ডিজিটাল যুগে সন্তান বড় করার কায়দা কানুন।

এই বইয়ের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এটি কোন প্রচলিত আত্মনির্ভর বই নয়। মা হিসাবে আমার সৎ এবং আন্তরিক যাত্রা বর্ণনা করতে চেয়েছি আমি এই বইয়ে।’ বইটি পাবলিশ করেছে পেঙ্গুইন র্যাটন্ডম হাউজ।

২০০৫ সালে সোনালী বেন্দ্রের ছেলে রণবীর যখন জন্মগ্রহণ করে, তখন মা হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে নিজের ক্যারিয়ারে ইতি টানেন তিনি। ছেলে যেদিন থেকে স্কুলে যাওয়া শুরু করে, ঠিক সে সময় থেকেই আবারও বলিউডে যুক্ত হতে শুরু করেন তিনি। এখন সন্তান দেখাশোনার ফাঁকে ক্যারিয়ারে সময় দিচ্ছেন এই অভিনেত্রী। ইন্ডিয়ান আইডল জুনিয়র, ইন্ডিয়াস গট ট্যালেন্ট, ইন্ডিয়াস বেস্ট ড্রামেবাজ সহ অসংখ্য টিভি শোতে বিচারকের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

ওদিকে কয়েক মাস আগে অভিনেত্রী টুইঙ্কেল খান্না একটি বই বের করেন। তিনি অনেকদিন আগে থেকেই ‘মিসেস ফানিবোনস’ ছদ্মনামে ব্লগ লিখে আসছিলেন। সেটির ব্যাপক জনপ্রিয়তার কারণে তিনি নিজ উদ্যোগে বই পাবলিশ করেন, যার শিরোনাম ‘মিসেস ফানিবোনস: শী জাস্ট লাইক ইউ অ্যান্ড অ্যা লট লাইক মি’। বইটি পাবলিশ করেছে পেঙ্গুইন ইন্ডিয়া। বইটিতে আধুনিক ভারতীয় নারীদের জীবনকে তুলে ধরা হয়েছে।

এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ‘আশিকি’ খ্যাত অনু আগারওয়ালও নিজের লেখকসত্ত্বাকে সবার সামনে উপস্থিত করলেন। অনু নিজের জীবনী তুলে ধরেছেন বইয়ের মলাটের ভেতর। বইটির নাম ‘আনুসুয়্যাল: মেমোয়্যার অফ অ্যা গার্ল হু কাম ব্যাক ফ্রম দ্য ডেড’। এই বইটি পাবলিশ করেছে হারপার কলিন্স ইন্ডিয়া। বইটিতে নিজের ভেতরে আকর্ষণীয় জীবনকে দেখাতে চেয়েছেন তিনি। নিজেকে অভিনেত্রী হিসেবে আবিস্কারের পর একটি দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন অনু। প্রায় মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে আসার পর সুস্থ্য হওয়ার সময়টিতে তাঁর জীবনে পুরুষদের আগমনের অভিজ্ঞতাগুলো ভক্ত ও পাঠকদের জানাতেই এই বইয়ের জন্ম দেন তিনি।

জনপ্রিয় ‘গাব্বার’ খ্যাত অভিনেতা আমজাদ খানের ছেলে শাদাব আমজাদ খান একটি বই লিখেছেন, যেটি কয়েকমাস আগে বেরিয়েছিল। বলিউডের অপরাধ জগতের কাহিনীর বিষয়বস্তু সংবলিত তাঁর জীবনের প্রথম রচিত এই উপন্যাসটির নাম ‘মার্ডার ইন বলিউড’, যা বের করেছিল পেঙ্গুইন ইন্ডিয়া।

‘ভিকি ডোনার’ খ্যাত অভিনেতা আয়ুষ্মান খুরানার আরেক পরিচয়, তিনি একজন লেখকও বটে। তাঁর নিজের অভিজ্ঞতা থেকে লেখা বইটির নাম ‘ক্র্যাকিং দ্য কোড’। বলিউড জগতে যেভাবে ধাপে ধাপে তিনি নিজের জায়গা করে নিয়েছেন, সেই গল্প এঁকেছেন তিনি বইটিতে।

বলিউডের সিরিয়াল কিসার হিসেবে খ্যাত জনপ্রিয় নায়ক ইমরান হাশমিও অভিনয়ের পাশাপাশি একজন লেখক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছেন সম্প্রতি। নিজের ব্যক্তিগত জীবনের অভিজ্ঞতার আবেগপ্রবণ গল্প প্রকাশ করেছেন তাঁর বইয়ে। তাঁর একমাত্র ছেলে বর্তমানে ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করছে। সেই অনুপ্রেরণা থেকে এই বইয়ের রচনা। বইটি যাতে অন্য ক্যান্সার যোদ্ধাদেরকেও সাহায্য করতে পারে, সে কারণে বইটি লিখেছেন তিনি।