মেইন ম্যেনু

বাঁশখালীর ঘটনা বিএনপি-জামায়াতের ইন্ধন

বাঁশখালীর ঘটনার পেছনে বিএনপি-জামায়াত নেতাদের প্রত্যক্ষ ইন্ধন ছিল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় যেসব নেতা গরম গরম বক্তব্য দিয়েছেন তারাই বিএনপি-জামায়াতের নেতা।’

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘বাঁশখালীতে সাধারণ মানুষকে ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে উত্তেজিত করা হয়েছে। আতঙ্ক তৈরি করে প্রশাসনের বিপরীতে মানুষকে দাঁড় করানো হয়েছে। সেজন্যই অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে।’ যাদের পরিবেশ সম্পর্কে ধারণা নেই তারাই পরিবেশ রক্ষার স্লোগান দিয়ে বাঁশখালীতে চলে গেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘এখন ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার মতো অবস্থা তৈরি হয়েছে। অর্থনীতি, আইন, বাংলা বিভাগের ছাত্রও এখন পরিবেশবিদ। এটা দেশের বড় দুর্ভাগ্য।’

বাঁশখালীর ঘটনা ও ঘটনার পরবর্তী ইন্ধনদাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান সাবেক এ মন্ত্রী।

‘দেশে কোনো উন্নয়ন হয়নি’ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘আপনি সুন্দর গাড়িতে চড়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে যান। এ রকম রাস্তা কি আপনার সময় ছিল।’

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘ভারমুক্ত হওয়ায় মিথ্যা কথা থেকে বিরত থাকবেন। কথাবার্তায় পরিবর্তন আনবেন। কিন্তু সেটা তো করছেন না।’

‘বিএনপির নতুন কমিটি আন্দোলনে সফল হবে’, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এ বক্তব্য উপহাস করে তিনি বলেন, ‘বিএনপির আন্দোলন এখন কৌতুকে পরিণত হয়েছে।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মো. শাহাদাত হোসেন ফয়েলের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন, আ.লীগের উপ কমিটির সহ সম্পাদক এমএ করিম, ব্যারিস্টার জাকির আহমেদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, এস আলম গ্রুপের অর্থায়নে বাঁশখালী গণ্ডামারা প্রস্তাবিত কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের প্রতিবাদে গত ৪ এপ্রিল ত্রিমুখি সংঘর্ষে কমপক্ষে ৪ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন আরো অনেকে।