মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশকে ১ কোটি পেসো দিতে চায় ফিলরেম

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে চুরি হওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলারের এক অংশ বাংলাদেশ সরকারকে ফেরত দেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছে ফিলিপাইনের মুদ্রা লেনদেনকারী প্রতিষ্ঠান ফিলরেম। এই প্রতিষ্ঠানটির মাধ্যমেই চুরি হওয়া অর্থের একটি বড় অংশ ফিলিপাইনের স্থানীয় মুদ্রায় পরিবর্তন করে হংকংয়ে পাচার করা হয়। ফিলিপাইনের সিনেট শুনানিতে অংশ নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার এমন মনোভাব জানান ফিলরেমের প্রেসিডেন্ট সালুদ বাতিস্তা।

আত্মপক্ষ সমর্থন করে সালুদ বাতিস্তা বলেন, ‘আমরা দুঃখিত। এই অর্থ যে বাংলাদেশ থেকে চুরি করা এটা আমাদের জানা ছিল না।’ শুনানিতে উপস্থিত ফিলিপাইনের নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রিচার্ড গোমেজের কাছে তিনি এ কথা বলে দুঃখ প্রকাশ করেন।

ফিলরেমের প্রধান আরও বলেন, চেকের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকারকে আমরা ১ কোটি পেসো (বাংলাদেশের মুদ্রায় প্রায় ২ কোটি টাকা) ক্ষতিপূরণ হিসেবে ফেরত দিতে চাই। ফিলরেমের মাধ্যমে লেনদেন হওয়ার পর তারা যে আয় করেছে এই অর্থ তার এক-চতুর্থাংশ। এটা আমারা করতে চাই কারণ অবৈধ কোনো লেনদেনের সঙ্গে জড়ানোর ইচ্ছা ফিলরেমের নেই।

সালুদ বাতিস্তার এমন বক্তব্যের পর সিনেট কমিটির এক সদস্য শুনানিতে উপস্থিত এক আইনজীবীর কাছে জানতে চান, বাংলাদেশকে ক্ষতিপূরণ দিলেই কী ফিলরেম অপরাধের দায়মুক্তি পাবে? জবাবে আইনজীবী জানান, ক্ষতিপূরণ দিলেও অন্যায়ের দায় এড়ানোর সুযোগ ফিলরেমের নেই।