মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশি তরুণী ভারতে গিয়ে ধর্ষিত

বেশ কয়েক মাস আগে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে নিজের দেশ ছেড়ে ভারতে চলে যান ৩৪ বছরের এক তরুণী। আর সেখানে গিয়েই ফাঁদে পড়ে ধর্ষিত হন তিন। পরে ওই নারী আত্মহত্যারও চেষ্টা করেন।

গত মে মাসে এ ঘটনা ঘটলেও ভারতের সংবাদ মাধ্যমগুলো ২৮ সেপ্টেম্বর সোমবার এ তথ্য প্রকাশ করেছে। তবে ওই নারীর নাম ঠিকানা দেয়া হয়নি।

কলকাতার সংবাদ মাধ্যম এবিপি আনন্দে জানানো হয়, বেশ কয়েক মাস আগে কেরালার কোঝিকোড়ের একটি ফ্ল্যাটে বাংলাদেশি এক নারীকে গণধর্ষণ করা হয়। সেই নারীকে পরে একটি নারী আবাসিক কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছিল। সেখানেই মেঝে পরিষ্কারের লোশন খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন ওই বাংলাদেশি নারী।

ঘর পরিষ্কার করতে গিয়ে এক পরিচ্ছন্নকর্মী ওই নারীকে অজ্ঞান অবস্থায় বাথরুমের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে কোঝিকোড় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিত্সার জন্য পাঠানো হয়। বর্তমানে তার অবস্থা কিছুটা ভালো।

জানা গেছে, বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাওয়ার পর মুম্বাইয়ের ট্রেনে এক দম্পতির সঙ্গে পরিচয় হয় ওই নারীর। তারাই তাকে কাজ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে কোঝিকোড়ে নিয়ে যায়। আর সেখানেই গণধর্ষণের শিকার হন ওই নারী।

এদিকে গত ২৮ মে এরানহিপালামের ফ্ল্যাটে ওই ৩৪ বছর বয়সী নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় এক নারীসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।