মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করলেন কৌশিক বসু

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও প্রধান অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসু। তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। ৬ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি বিরল।

রোববার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতকালে তিনি এই অভিমত প্রকাশ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতকালে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির বিভিন্ন দিক নিয়েও আলোচনা হয়। সাক্ষাত শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের এ বিষয়ে ব্রিফ করেন সাফল্যের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৌশিক বসুকে বলেছেন, ‘বর্তমান সরকার টার্গেট ঠিক করে কাজ করে।’

গ্রামীণ অর্থনীতির উন্নয়নের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘গ্রামের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়ন জরুরি।’ এ সময় তিনি শক্তিশালী গ্রামীণ অর্থনীতি গঠনে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করেন। খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কৃষিতে আমরা এগিয়ে গেছি। আমাদের খাদ্য আমদানি করতে হয় না।’ খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে সরকারের উৎসাহ দেওয়ার বিষয়টিও উল্লেখ করেন তিনি।

এ সময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা গওহর রিজভী, অর্থনৈতিক উপদেষ্টা মশিউর রহমান, মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, অর্থনীতি সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ড. আতিউর রহমান।

এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের আমন্ত্রণে গত শনিবার ৪ দিনের সফরে ঢাকায় আসেন কৌশিক বসু। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ বিরূপাক্ষ পাল বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানান। পরে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে উঠেন তিনি। সেখানে বিশ্বব্যাংক ঢাকা অফিসের কর্মকর্তারা তার সঙ্গে বৈঠক করেন। এ ছাড়া তিনি আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) গবেষকদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তিনি বিআইডিএসে এক সময় গবেষণার কাজ করেছিলেন।

দেশের অর্থনীতির জন্য সহায়ক পরামর্শ গ্রহণ ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তাদের তার গবেষণালব্দ জ্ঞান থেকে প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্যেই তাকে ঢাকায় আমন্ত্রণ করা হয়েছে বলে জানান বিরূপাক্ষ পাল।

ঢাকায় কৌশিক বসু যে সব অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন তার মধ্যে রয়েছে, রপ্তানিমুখী শিল্পের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক, বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় পরিদর্শন, ‘বিশ্ব অর্থনীতি, বাংলাদেশ ও আঞ্চলিক সহযোগিতা’ বিষয়ের ওপর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে গণবক্তৃতা প্রদান, ‘সামষ্টিক স্থিতিশীলতা, ব্যক্তি খাতের উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি’ বিষয়ক আন্তর্জাতিক কর্মশালায় অংশগ্রহণ, গ্রামীণ অর্থনীতির চিত্র দেখতে মাঠ পর্যায়ে পরিদর্শন, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এবং সবশেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন।