মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশে কার্গো পরিচালনায় আগ্রহী রাশিয়া

বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে অনেক দেশ আপত্তি তুললেও বাংলাদেশে সরাসরি কার্গো পরিচালনার আগ্রহ প্রকাশ করেছে রাশিয়া।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গনি চৌধুরীকে এ বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করে বুধবার (৪ জুলাই) চিঠি পাঠিয়েছেন ঢাকাস্থ রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সজেন্ডার ইগনাতোভ।

কার্গোর পাশাপাশি তারা সপ্তাহের সাতদিন ফ্লাইট পরিচালনা এবং থার্ড ও ফোর্থ ফ্রিডমও চেয়েছেন, যাতে যেকোনো আকৃতির উড়োজাহাজ এসব রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারে।

রাষ্ট্রদূত আলেক্সজেন্ডার ইগনাতোভ এর পাঠানো ওই চিঠিতে উল্লেখ করেন, রাশিয়ার এয়ারব্রিজ কার্গো এয়ারলাইন্স এলএলসি (এবিসি) বাংলাদেশ থেকে সরাসরি কার্গো পরিবহন করতে চায়। ঢাকা-মস্কো হয়ে সিঙ্গাপুর বা সাংহাইয়ে সরাসরি কার্গো ফ্লাইট চালুসহ বোয়িং ৭৪৭ দিয়ে সপ্তাহে মোট তিনটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে এবিসি।

জানা গেছে, ঢাকা ও মস্কোর মধ্যে ১৯৭৩ সালে স্বাক্ষরিত এয়ার সার্ভিস চুক্তির আওতায় রাশিয়া বাংলাদেশের কার্গো পরিবহনের এ সুযোগ চেয়েছে। রাশিয়ার যেকোনো কার্গো পরিবহনকারী উড়োজাহাজ পরিবহন সংস্থা ঢাকাসহ অন্যান্য বা মধ্যবর্তী যেকোনো গন্তব্যে যাওয়ার অনুমতি চেয়েছে দেশটি।

এ বিষয়ে বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গনি চৌধুরী বলেন, চিঠি এখনো আমি পাইনি। তবে বেশকিছু দেশ বাংলাদেশে কার্গো পরিচালনায় আগ্রহ দেখাচ্ছে।

আর রাশিয়ার এই আগ্রহ প্রমাণ করেছে ঢাকার বিমানবন্দরে নিরাপত্তা আন্তর্জাতিক মানে পৌঁছেছে । দেশের সব ক’টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তাসহ যাবতীয় উন্নয়ন প্রকল্পের কার্যক্রমও এগিয়ে চলছে বলে জানান তিনি।