মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় মোদির হস্তক্ষেপ কামনা

বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আহমেদ আযম খান। তিনি বলেন, ভারত আমাদের প্রতিবেশী, বন্ধু ও বড় দেশ। সেই দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশে এসেছেন। তিনি সে দেশের জনগণের ভোটে নির্বাচিত একজন প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানেন, বাংলাদেশে গণতন্ত্রের সংকট চলছে। বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় এ সময় তিনি মোদির হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে সাউথ এশিয়া ইয়ুথ ফর পিস অ্যান্ড প্রোসপারেটি সোসাইটি আয়োজিত আলোচনা সভায় এ সব কথা বলেন আহমেদ আযম খান। বাংলাদেশের মানুষের ভোটের অধিকার ফিরে পেতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। আহমেদ আযম খান বলেন, বাংলাদেশে যদি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা না হয় কিংবা জঙ্গিবাদের উত্থান হয়, তার প্রভাব ভারতেও পড়বে। কারণ, ভারত প্রতিবেশী দেশ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ২২টি চুক্তি সই হবে। কিন্তু কী চুক্তি হচ্ছে, তা জনগণ জানে না। চুক্তিগুলি জানানো হলে বাংলাদেশ ও ভারতের জনগণের উপকারই হবে। কোনো চুক্তির ফলে যেন বাংলাদেশের ক্ষতি না হয়, তার প্রতি লক্ষ রাখতেও মোদির প্রতি আহ্বান জানান বিএনপি চেয়ারপারসনের এই উপদেষ্টা। আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী, বিএনপির আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. আসাদুজ্জামান রিপন প্রমুখ।