মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ আওয়ামী প্রচার ও প্রকাশনালীগ সভাপতিকে হত্যার হুমকি

গত ২২ আগষ্ট ২০১৫ তারিখ সন্ধা ৭.৫১ মিনিটে ০১৯৭১২৪৮০২৫ এই মোবাইল নাম্বার থেকে ফোন করে বাংলাদেশ আওয়ামী প্রচার ও প্রকাশনালীগ এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, টুঙ্গীপাড়ার কৃতি সন্তান এম এইচ আলমগীর হোসেনকে প্রানে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়। ঐসময় এম এইচ আলমগীর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সন্ত্রাসী দ্বারা মারাত্বক আহত আওয়ামী ওলামালীগের সভাপতি আল্লামা ইলিয়াস হোসেইন বিন হেলালীকে দেখে ফেরার পথে হাসপাতালের মধ্যেই তার মোবাইলে উক্ত নাম্বার থেকে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। ফোনে তারা বারবার বলে “তুই হাসপাতালে হেলালীকে দেখতে গেছিস, হেলালীর জন্যে তোর এত্ত দরদ, তার জন্যে পোষ্টার ছেপেছিস হারামজাদা! এবার তোর পালা তুই রেডি হয়ে যা তোকেও হেলালীর মত অবস্থা বরণ করতে হবে এবং যেকোন সময় তোকে বুলেটের গুলিতে ঝাঁঝরা করে মেরে ফেলা হবে”-এই কথাগুলো বলে মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। এখবর শোনার পর দলের নেতা-কর্মীরা ক্ষোবে ফেটে পড়ে। সভাপতি সকলকে শান্ত থাকার নির্দেশ দেন এবং সাধারণ সম্পাদককে পরেরদিন জরুরীভিত্তিতে দলের প্রধান কার্যালয়ে জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভা আহবান করতে বলেন। সভায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের পক্ষে সর্বসম্মতিক্রমে প্রস্তাব গৃহীত হয় এবং সেই অনুযায়ী রাতেই শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয় যার নং-১০৯৮/২২/০৮/২০১৫। ডায়েরীতে তিনি উল্লেখ করেন আমার এবং আমার সংগঠনের কোন নেতা-কর্মীর জীবনের উপর কোন প্রকার হামলা বা হত্যার হুমকি আসলে তার জন্যে অবশ্যই উক্ত M H Alamgir Hossain (President of APPL) pic-2মোবাইল নাম্বার (০১৯৭১২৪৮০২৫) ব্যবহারকারী খুনী-সন্ত্রাসী ব্যক্তিই দায়ী থাকবে। বাংলাদেশ আওয়ামী প্রচার ও প্রকাশনালীগ এর পক্ষ থেকে গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহোদয়ের কাছে উক্ত মোবাইল নাম্বার থেকে হুমকী প্রদানকারী খুনী-সন্ত্রাসীকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য জোর দাবী জানান তিনি।