মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ কি পাকিস্তান বা আফগানিস্তান হচ্ছে : ফখরুল

বাংলাদেশের পরিস্থিতি আফগানিস্তান, পাকিস্তান বা সিরিয়ার মত হচ্ছে কি না- জানতে চেয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশ কি আফগানিস্তানের মতো হবে, পাকিস্তানের মতো হবে? বোমায় শত শত মানুষ নিহত হবে? সিরিয়ার মতো লাখ লাখ মানুষ বস্তুহারা হয়ে চলে যাবে?’

শুক্রবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপির এক অনুষ্ঠানে ফখরুল এসব কথা বলেন। এনডিপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আনোয়ার জাহিদের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকীতে তার স্মরণে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

এশিয়ার প্রতিবেশি দুই দেশ আফগানিস্তান ও পাকিস্তানে জঙ্গি হামলা প্রায় নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। নিরস্ত্র জনগণের ওপর ধর্মভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠীদের হামলায় বিপুল পরিমাণ প্রাণহানি স্বাভাবিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর মধ্যপ্রাচ্যের সিরিয়ায় আইএস জঙ্গিদের সঙ্গে সরকারি বাহিনীর সংঘর্ষের কারণে দেশ ছেড়ে পালিয়েছে লাখ লাখ মানুষ।

বাংলাদেশের গত কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন এলাকায় উগ্রবাদীদের হামলা হয়েছে। গত জুলাইয়ে গুলশানের অভিজাত রেস্টুরেন্ট হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় ১৭ বিদেশিকে হত্যার পর এ নিয়ে দেশের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পর্যায়েও উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। সরকার অবশ্য জঙ্গিবিরোধী অভিযান জোরদার করার কথা জানিয়েছে।

তবে ফখরুল বলছেন, সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে জঙ্গিবাদকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। তিনি বলেন, ‘দেশে সবচেয়ে বড় সন্ত্রাস হচ্ছে রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে।’ তিনি বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র না থাকায় জঙ্গিবাদ, উগ্রবাদ, হিং¯্রতা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। তাই গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জাতীয় ঐক্যের আহ্বানের বিষয়ে ফখরুল বলেন, ‘তিনি দায়িত্বশীলতা থেকে তিনি এই আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য আওয়ামী লীগ কোনোদিন জাতিকে রক্ষার আহ্বানে সাড়া দেয়নি। এবারও দেয়নি। উল্টো এ নিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে।’

নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে ‘জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে’ চলমান সমস্যার সমাধান সম্ভব বলে দাবি করেন বিএনপি নেতা। বলেন, ‘সরকারদল একদলীয় শাসন কায়েমের লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে। আগে তারা বাকশাল কায়েম করে একদলীয় শাসন কায়েম করেছিলো। কিন্তু এখন সময় পাল্টানোর কারণে তারা পুরো রাষ্ট্রব্যবস্থাকে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে সেদিকে এগিয়ে যাচ্ছে।’

এনডিপি নেতা আনোয়ার জাহিদের প্রশংসা করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘তিনি কখনো অর্থের পেছনে ছুটেননি। তিনি সব সময় তিনি মানুষের কথা বলতেন। তার কথা ছড়িয়ে দিতে হবে।’

এনডিপির চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্ত্তজার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান, আনোয়ার জাহিদের ভাই সাংবাদিক মোয়াদুর রহমান প্রমুখ।