মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ-চীনের ১৪৫০ কোটি টাকার বিনিয়োগ চুক্তি

সফররত চীনের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ১ হাজার ৪৫০ কোটি ৮০ লাখ টাকার (১৮ কোটি ৬০ লাখ মার্কিন ডলার) বিনিয়োগ চুক্তি করেছে বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা (বিজনেস টক) শেষে দুই দেশের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এ চুক্তি সই হয়।

অনুষ্ঠানে চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-মহাপরিচালক লিউ চ্যাংগিউসহ দেশটির বাণিজ্য প্রতিনিধি দল এবং এফবিসিসিআই সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদসহ দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় চীনের ৭টি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বাংলাদেশের পাট, চামড়া এবং খদ্যসংশ্লিষ্ট ১৩টি প্রতিষ্ঠান পৃথকভাবে ১৩টি চুক্তি সই করে।

এফবিসিসিআইয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের পরিমাণ ১ হাজার ৪৫ কোটি ৩৯ লাখ। এর মধ্যে বাংলাদেশের রফতানি মাত্র ৮০ কোটি ৮১ লাখ ডলার। চীন থেকে আমদানি হয়েছে ৯৬৪ কোটি ৫৮ লাখ ডলারের সমপরিমাণ পণ্য। তাই বাণিজ্য ঘাটতি কমানোর জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা বিবেচনা করছে ঢাকা ও বেইজিং।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ এখন চীনের তৃতীয় বৃহত্তম বাণিজ্যিক অংশীদার। বাংলাদেশ এখন চীন থেকেই সবচেয়ে বেশি পণ্য আমদানি করে। বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ১ হাজার কোটি ডলার (১০ বিলিয়ন) ছাড়িয়ে গেছে।

উল্লেখ্য, ৩০ বছরের মধ্যে এই প্রথম চীনের কোনো প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাংলাদেশে সফরে আসছেন শি জিনপিং। আগামীকাল শুক্রবার চীনের প্রেসিডেন্ট সফরে আসবেন। এসময় ২৫টির বেশি চুক্তি সই হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী।