মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক বিনষ্ট করবে রামপাল : রব

বাগেরহাটের রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপ-বিদ্যুৎকেন্দ্র বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক বিনষ্ট করবে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জেএসডি আয়োজিত এক সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আবদুর রব বলেন, রামপালের বিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়ে দুই দেশের মানুষের মাঝেই উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। এ প্রকল্প বাতিলের দাবি উঠছে। ইউনেস্কোসহ সারা বিশ্বের পরিবেশবাদীরাও এ প্রকল্প বন্ধের আবেদন জানিয়েছে।

তিনি বলেন, সরকার যদি ক্ষমতার মোহগ্রস্ততায় একগুয়েমি বা জেদ করে এ প্রকল্প থেকে সরে না দাঁড়ায় তাহলে বাংলাদেশের জনগণের মাঝে ভারতবিরোধী মনোভাব বেড়ে উঠবে, যা দুেই দেশের সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ককে বিনষ্ট করবে।

আমরা ভারত সরকারকেও এ প্রকল্প থেকে সরে আসার অনুরোধ জানাবো উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ প্রকল্প বাতিল করে সরকার দ্রুত দেশের পক্ষে অবস্থান নেবে- এটাই দেশবাসীর প্রত্যাশা।

স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে দলের অঙ্গ শাখায় পরিণত করা হচ্ছে জানিয়ে রব বলেন, জনগণের প্রতিষ্ঠান দখল করা হচ্ছে। বিদ্যুৎ-গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির অপচেষ্টা বন্ধ করতে হবে। এছাড়া রাষ্ট্রের উচ্চপর্যায় থেকে তৃণমূল পর্যন্ত ঘুষ-দুর্নীতি-নিয়োগ ও দখল বাণিজ্যসহ হত্যা, গুম, খুন, অপহরণ করে দেশকে রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া করে দিচ্ছে। দেশবাসীকে এসবের বিরুদ্ধে দ্রুত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

জেলা পরিষদ নির্বাচনের আগে পরিষদের ক্ষমতা ও করণীয় নির্ধারণ, রামপাল থেকে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের স্থান পরিবর্তন, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নির্মূলে জাতীয় ঐক্য গঠন ও গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির অপতৎপরতা বন্ধের দাবিতে সারা দেশে এ কর্মসূচি পালন করে দলটি।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন দলটির সভাপতি আ স ম আবদুর রব। সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন দলটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, এম এ গোফরান, আতাউল করিম ফারুক, মো. সিরাজ মিয়া, মিসেস তানিয়া ফেরদৌসী, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে একটি মিছিল জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে শুরু করে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।