মেইন ম্যেনু

বাছুর হয়নি, অথচ দুধ দিচ্ছে গরুটি!

গাভি দুধ দেয়—এটা সবার জানা। কিন্তু দুই বছর বয়সের বকনা গরু দুধ দেয়, এটা অস্বাভাবিক। অন্যরকম এই ঘটনা ঘটেছে নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার ফাঁগুয়াড়দিয়াড় গ্রামের আবুল খায়েরের বাড়িতে। বকনা গরুটি এখন আড়াই লিটার করে দুধ দিচ্ছে। এ ঘটনা শুনে প্রতিদিন উৎসুক মানুষ ভিড় করছে ওই বাড়িতে।

শুক্রবার বিকেলে সরেজমিনে আবুল খায়েরের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেল, তিনি তাঁর দুই বছর বয়সের বকনা গরুর দুধ সংগ্রহ করছেন। বকনা গরুর বাঁট থেকে গাভির মতো অনর্গল দুধ ঝরছে। আশপাশে নেই কোনো বাছুর। এই দৃশ্য দেখতে উৎসুক জনতার ভিড়। সংগ্রহ শেষে দেখা গেল, প্রায় আড়াই লিটার দুধ জমেছে। তিনি ২২ দিন ধরে এই গরু থেকে এভাবে দুধ সংগ্রহ করছেন।

আবুল খায়েরের ভাষ্য, দীর্ঘদিন ধরে তিনি গাভি পালন করছেন। দুই বছর আগে তাঁর পালিত গাভির বাছুর হয়। আর সেই বাছুরকে লালন-পালন করে আসছেন তিনি। ২২ দিন আগে তিনি দুই বছর বয়সী গরুকে গোসল করাতে গেলে গরুটির দুধের বাঁট ফুলা দেখে ধারণা করেন, গরুটির বাঁটে দুধ জমেছে। তিনি তাৎক্ষণিক ওই বকনা গরু থেকে দুধ সংগ্রহ করেন। প্রথম কয়েক দিন ২৫০-৫০০ মিলিলিটার দুধ পান তিনি। এখন দুধ দেওয়ার পরিমাণ বেড়েছ। দুধ পরিবারের সদস্যরা পান করছেন। বাড়তিটা বিক্রি করে দেন।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাণীসম্পদ কার্যালয়ের পশু চিকিৎসক অভিমন্যু চন্দ্র বলেন, হরমনের কারণে এমনটা হয়। ঘটনাটি ভিন্নরকম মনে হলেও ওই দুধ পুরোপুরি স্বাস্থ্যসম্মত।






মন্তব্য চালু নেই