মেইন ম্যেনু

বাজেটের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব নয় : সিপিডি

২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বাস্তবতার নিরিখে এই বাজেট বাস্তবায়ন সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন বেসকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)।

শুক্রবার লেকশোর হোটেলে ‘জাতীয় বাজেট ২০১৬-১৭: সিপিডির পর্যালোচনা’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে প্রস্তাবিত এই বাজেটের নানা অসঙ্গতি তুলে ধরে এ মন্তব্য জানায় সংগঠনটি।

বাজেট বাস্তবায়ন বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে সিপিডির ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্য বলেন, ‌‘আপানার যদি একটা লক্ষ্য থাকে, তাহলে একটা তীর চালাতে হবে। সেই তীরের জন্য একটা ধনুক লাগবে। এই ধনুকটা হলো আয়, তীরটা হলো ব্যায়। আমরা সেই তীর এবং ধনুকের লক্ষ্য ভেদ করার সম্ভবনা দেখছি না। অর্থাৎ বর্তমান বাজেট কাঠামোর মাধ্যমে আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছানো সম্ভব নয়।’

‌আমি একটা অস্বস্তিমূলক স্বস্তির মধ্যে আছি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বাজেটে বিনিয়োগের যে লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে সেটা বাস্তবায়নে ব্যক্তিখাতে বাড়তি ৮০ হাজার কোটি টাকা প্রয়োজন হবে। এই টাকা কোথা থেকে আসবে, ব্যাংক থেকে না পুজিঁবাজার থেকে এই বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট বক্তব্য নেই।’

২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে উন্নয়ন ব্যয়ের চেয়ে অনুন্নয়ন ব্যয় তুলনামূলক অনেক বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সাধারণত বাজেটে অনুন্নয়ন ব্যয়ের উন্নয়ন ব্যয়ে বাড়নো দরকার। কিন্তু আমাদের বাজেটে উন্নয়ন ব্যয়ের চেয়ে অনুন্নয়ন ব্যয় তুলনামূলক অনেক বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটেও এটি লক্ষ্য করা গেছে।’

সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বৃদ্ধি, বিভিন্ন খাতে ভূর্তকি প্রদান, পুজিবাজারে বিনিয়োগের অর্থ বরাদ্দসহ বিভিন্ন কারণে অনুন্নয়ন ব্যয় বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশে বাজেটে উন্নয়ন ব্যয় বেশি বরাদ্দ রাখা দরকার বলে মনে করেন এই অর্থনীতিবিদ।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ড মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত গবেষণা পরিচালক ড গোলাম মোয়াজ্জেম হোসেন, রিসার্স ফেলো তৌফিকুল ইসলাম খান প্রমুখ।