মেইন ম্যেনু

বাজেট আরো বড় করার পরামর্শ সিপিডির

দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির কথা বিবেচনায় আগামী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেট আরো বড় করার পরামর্শ দিয়েছে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি)। যেখানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এবার ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার চেয়ে বেশি বাজেট দেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন। যেখানে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট ২ লাখ ৯৫ হাজার ১০০ কোটি টাকা।

রোববার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আগামী বাজেটের আকার সম্পর্কে এমন মত দেয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সিপিডির পক্ষ থেকে বলা হয়, আগামী ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটের জন্য অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত যে আভাস দিয়েছেন দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা বিবেচনায় তা আরও বাড়ানো প্রয়োজন।

এসময় সিপিডির সম্মানিত ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, ‘বাজেট বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা গুণগত মানসম্পন্নও হতে হবে। আগামী বাজেট হতে হবে অন্তর্ভূক্তিমূলক, দরিদ্র ও দুঃস্থবান্ধব, উৎপাদনমূলক, সংস্কারমূলক ও বৈশ্বিক অর্থনৈতিক বান্ধব।’

ড. দেবপ্রিয় বলেন, ‘আমাদের মোট দেশীয় উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবদ্ধি বাড়ছে। এবং বর্তমানের অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে আমাদের বাজেটের আকার আরও বাড়ানো প্রয়োজন। গত অর্থবছরের বাজেটের আকার ছিল জিডিপির ১৭ শতাংশ। জিডিপির বিপরীতে বাংলাদেশের বাজেট বিশ্বের অন্য দেশগুলোর তুলনায় অনেক ছোট। আমাদের মত অর্থনৈতিক অবস্থা সম্পন্ন দেশের বাজেটের আকার জিডিপির ২০ থেকে ২২ শতাংশ হওয়া প্রয়োজন।’

সিপিডি বড় বাজেটের পক্ষ নেয়ার কারণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘টাকার অংকে নয়, বাজেট হতে হবে অর্থনীতির কাঠামোর ওপর ভিত্তি করে। দেশে এখন অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি ঘটছে। অথচ সে অর্থনৈতিক বৃদ্ধির তুলনায় আমাদের বাজেট ততটা বৃদ্ধি পাচ্ছে না।’

দেবপ্রিয় বলেন, ‘বিশ্ব অর্থনীতি বর্তমানে কঠিন অবস্থার দিকে যাচ্ছে। বিশ্ব মন্দা যেন আমাদের অর্থনীতি ধাক্কা দিতে না পারে তার সুনির্দিষ্ট প্রস্তুতি থাকতে হবে আগামী বাজেটে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ড. মুস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত গবেষণা পরিচালক ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম, রিসার্চ ফেলো তৌফিকুল ইসলাম প্রমুখ।