মেইন ম্যেনু

বাটা’র ওপর ক্ষুব্ধ সংসদীয় কমিটি

বাটা সু-কোম্পানির শ্রমিক ছাঁটাই নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে সংসদীয় কমিটি। এছাড়া চীন থেকে নিম্নমানের জুতা কিনে এনে বাংলাদেশে বাজারজাত করায় ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে অনুষ্ঠিত শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১২তম বৈঠকে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। কমিটির সভাপতি মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক, মোঃ ইসরাফিল আলম, আনোয়ারুল আবেদীন খান, ছবি বিশ্বাস, মোঃ রুহুল আমিন এবং মোঃ রেজাউল হক চৌধুরী অংশ নেন।

বৈঠকে বাটা সু-কোম্পানির শ্রমিক ছাঁটাই বিষয়ে ১ নং উপ-কমিটির তদন্ত প্রতিবেদন বিষয়ে ও রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় নিহত/আহতদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার সর্বশেষ বিষয় এবং এতদসংশ্লিষ্ট মামলা সমূহের সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।

সাব কমিটি বাটা-সু কোম্পানীর শ্রমিকদের মূল বেতন বাড়ানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করে।

বাটার শ্রমিকদের নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে যে স্বার্থান্বেষী বহিরাগত পক্ষ ভয়ভীতি প্রদর্শন, যে আইনী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে বাটা-সুকোম্পানীর স্বাভাবিক ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড পরিচালনায় ব্যাঘাত সৃষ্টি করছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সাব-কমিটি সুপারিশ করে।

অভিযোগকারীগণের অভিযোগ প্রত্যাহারপূর্বক বাটা কর্তৃপক্ষের সাথে আপোষ মিমাংসা সাপেক্ষে তাদের সকলের চাকরি পুনর্বহাল করার জন্য বাটা কর্তৃপক্ষকে পত্র পাঠানোর জন্য সাব-কমিটি সুপারিশ করে।

সাব-কমিটি বাটা-সু কোম্পানীর ফ্যাক্টরীতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা রাখার জন্য প্রয়োজনীয় এলইডি লাইট ব্যবহার এবং মামলা বা ধোঁয়া নির্গমনের জন্য উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সুপারিশ করে।

বৈঠকে উল্লেখ করা হয় যে, রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় নিহত/আহতদের ক্ষতিপূরণ প্রদানের উদ্দেশ্যে প্রাপ্ত অনুদানের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল হতে প্রদত্ত অনুদান সর্বমোট বাইশ কোটি ঊননব্বই লক্ষ পচাঁত্তর হাজার সাতশত বিশ টাকা, ইন্টারন্যাশনালট্রাষ্ট ফান্ড প্রদত্ত অনুদান সর্বমোট উনত্রিশ কোটি উনচল্লিশ লক্ষ ষাট হাজার আটশত বাহাত্তর টাকা ও প্রাইমার্ক হতে প্রদত্ত অনুদান সর্বমোট একশত এক কোটি বত্রিশ লক্ষ উনত্রিশ হাজার চারশত একষট্টি টাকা।

এছাড়া বৈঠকে আরো উল্লেখ করা হয় রানাপ্লাজা দুর্ঘটনার প্রেক্ষিতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর কর্তৃক মোট ১১টি মামলা শ্রম আদালতে দায়ের করা হয়েছে।

বৈঠকে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শকসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।



« (পূর্বের সংবাদ)