মেইন ম্যেনু

বান্দরবানের লামায় মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

লামায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার দাবীতে ১২ আগষ্ট বুধবার বেলা ১১ঘটিকার সময় লামা উপজেলা পরিষদ চত্বর সম্মুখে লামা উপজেলা, পৌর ও মাতামুহুরী ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

মানববন্ধন শেষে সংক্ষিপ্ত আলোচনার পর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নেতৃত্বে লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদ মাহমুদ-এর মাধ্যমে মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রীর বরাবরে খুনিদের ফাঁসির দাবীতে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।
মানববন্ধনের সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বক্তব্যে রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও মুক্তিযোদ্দা কমান্ডার শেখ মাহাবুবুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ-আল মামুন, সাধারণ সম্পাদক মংক্যহ্লা মার্মা, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ শাহীন প্রমূখ।

এসময় বক্তারা বলেন, ১৯৭৫ সালে ১৫ আগষ্ট এই দিনটি ইতিহাসের পাতায় অত্যান্ত কলংকিত দিন হিসেবে বিবেচিত। এদিনে বাঙ্গালী জাতির অবিসংবাদিত নেতা, সর্বকালের সর্ব শ্রেষ্ট বাঙ্গালী স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ধানমন্ডির ৩২ নং বাড়িতে স্ব-পরিবারে নির্মম ভাবে হত্যা করেছিল একদল রক্ত পিপাসু বিপদগামী উশৃঙ্খল সেনা সদস্যরা।

জাতির পিতার হত্যা মামলার মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত ১২ আসামীর মধ্যে ইতিমধ্যে ৫জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর করা হয়। বাকী ৬ জন খুনির লে. কর্ণেল অবঃ প্রাপ্ত এসএইচএমবি নূর চৌধুরী (কানাডা), লে. কর্ণেল অবঃ এমএ রাশেদ চৌধুরী (আমেরিকা), লে. কর্ণেল শরিফুল হক ডালিম, লে. কর্ণেল অবঃ খন্দকার আব্দুর রশীদ, ক্যাপ্টেন অবঃ আব্দুল মাজেদ ও রিসালদার মোসলেম বিভিন্ন দেশে পলাতক অবস্থায় রয়েছে। এছাড়া পলাতক অবস্থায় জিম্বাবুয়েতে মারা যায় লে. কর্ণেল অবঃ আজিজ পাশা। বক্তারা এই ৬ খুনিদেরকে দেশে ফিরিয়ে এনে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার দাবী জানিয়ে বাঙ্গালি জাতিকে কলংক মুক্ত করতে সরকারের প্রতি জোরালো আবেদন জানান।