মেইন ম্যেনু

বান্ধবীকে ব্যাট দিয়ে পিটিয়েছিলেন পিস্টোরিয়াস!

তবে কি এত দিন ধরে মিথ্যাই বলে আসছেন অস্কার পিস্টোরিয়াস? না জেনে, অনুপ্রবেশকারী ভেবে গুলি চালিয়েছিলেন বলেই দাবি করা হয়েছে এত দিন। কিন্তু ফরেনসিক রিপোর্টে যা আছে, তাতে পিস্টোরিয়াসের অনিচ্ছাকৃত হত্যার দাবি মিথ্যা বলেই মনে হচ্ছে। পিস্টোরিয়াসের দাবি ছিল, গুলি চালানোর আগে জানতেন না কাকে গুলি করছেন।

কিন্তু ফরেনসিক প্রতিবেদন বলছে, গুলি করার পাশাপাশি ব্যাট দিয়েই পেটানো হয়েছিল নিহত রিভা স্টিনক্যাম্পকে। দুজনের মধ্যে ধস্তাধস্তির আলামতও মিলেছে।

সম্প্রতি প্রকাশিত ক্যালভিন ও টমাস মোলেটের লেখা ‘অস্কার ভার্সেস দ্য ট্রুথ’ থেকে এই তথ্য জানা গেছে। বইয়ে ফরেনসিক প্রতিবেদনের বিভিন্ন তথ্য উঠে এসেছে। বইয়ে বলা হয়েছে, স্টিনক্যাম্পের সঙ্গে ঝগড়ার একপর্যায়ে পিস্টোরিয়াস বাথরুমে বন্দী করে রাখেন। এরপর পিস্তল দিয়ে চারটি গুলি করে স্টিনক্যাম্পকে শেষ করে দেওয়া হয়। আদালতকে পিস্টোরিয়াস বলেছিলেন, বাথরুমের ভেতরে অনুপ্রবেশকারী ঢুকেছে ভেবেই গুলিটা চালান। পরে আবিষ্কার করেন, যাঁকে অনুপ্রবেশকারী ভেবেছেন, তিনিই আসলে প্রেমিকা স্টিনক্যাম্প।

২০১৪ সালে প্রিটোরিয়ার একটি আদালত পিস্টোরিয়াসকে বান্ধবী হত্যার দায়ে অভিযুক্ত করলেও সেই হত্যাকাণ্ড অনিচ্ছাকৃত ছিল বলে রায় দিয়েছিলেন। পরে অবশ্য স্টিনক্যাম্পের পরিবার এই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করলে আদালত অনিচ্ছাকৃত হত্যাকাণ্ডকে ঠান্ডা মাথার হত্যা হিসেবে অভিহিত করে পিস্টোরিয়াসকে ১৫ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন। পিস্টোরিয়াস এই সাজা কমানোর আবেদন করেছেন। সূত্র : ডেইলি মেইল।