মেইন ম্যেনু

বাবার কাছে চাঁদা চেয়ে ছেলের জায়গা হলো কারাগারে

বাবার কাছে চাঁদা চাওয়ার অভিযোগে ছেলের জায়গা হলো কারাগারে। শনিবার সকালে বাবা নিজেই বেলাল উদ্দিন মুন্না (৩৪) নামে ওই ছেলেকে পুলিশে দিয়েছেন।

বায়েজিদ থানার পাঁচলাইশ চালিতাতলি এলাকা থেকে আটক বেলাল উদ্দিন মুন্নার বিরুদ্ধে নিজ পিতাকে হত্যা চেষ্টা ছাড়াও পাঁচলাইশের সাবেক ওয়ার্ড কমিশনার লিয়াকত আলী হত্যা, জায়গা দখল, চাঁদাবাজি ও শিবির ক্যাডার সাজ্জাদকে সহযোগিতার অভিযোগ রয়েছে।

বায়েজিদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ছেলে সন্ত্রাসী, হত্যা মামলার আসামি। অপরাধ কর্মকাণ্ড থেকে তাকে কিছুতেই থামানো যাচ্ছিল না।

তিনি বলেন, চাঁদার দাবিতে শেষ পর্যন্ত বাবার ওপরও হামলা করেছে। নিরুপায় হয়ে পুলিশের সাহায্য চাইলেন তার বৃদ্ধ পিতা। থানায় নিজের ছেলেসহ পুত্রবধূর নামে দায়ের করেন মামলা। সেই মামলায় ছেলেকে গ্রেফতার করে বায়েজিদ থানা পুলিশ।

ওসি মহসীন বলেন, পরিবারের অমতে প্রথম স্ত্রীকে তালাক দিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন মুন্না। এরপর থেকে ৫০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি এবং সম্পত্তি নিজের নামে লিখে নেয়ার জন্য পিতার ওপর নির্যাতন করে আসছিল।

তিনি বলেন, একপর্যায়ে গত ১০ মে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে স্ত্রী ও সুমন নামে একজনকে নিয়ে ব্যাপক মারধরও করে মুন্না। এ ঘটনায় চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতেও একটি জিডি করেছিলেন মুন্নার পিতা আব্দুর রশীদ।

গত ১০ মের ঘটনায় মামলা দায়েরের পর শরিবার সকালে নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান তিনি।