মেইন ম্যেনু

বাবা-মায়ের উপর অভিমান করে পুত্রের আত্মহত্যা

বাবা-মায়ের উপর অভিমান করে শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে বিষপান করে আত্মহত্যা করলো কলেজ পড়ুয়া ছাত্র। আত্মহননকারী অরবিন্দ্র চন্দ্র বর্মন ঝিনাইগাতী বাজারস্থ ব্রাইট প্রি-ক্যাডেট বিদ্যানিকেতনের পরিচালক ও প্রধান শিক্ষক ঘোষগাঁও গ্রামের রত্নেশ্বর চন্দ্র বর্মনের ছেলে।
জানা গেছে, শনিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে বাবা-মার সাথে অভিমান করে বিষপানে আত্মহত্যা করে আলহাজ শফি উদ্দিন আহম্মদ কলেজের ছাত্র অরবিন্দ্র। ২ ছেলে ১ মেয়ের মধ্যে অরবিন্দ্র সবার বড়। নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বাবা মা উভয়েই শিক্ষকতা পেশার সাথে জড়িত থাকার পরেও বেশ কিছু দিন যাবৎ অরবিন্দ্র তার পড়াশুনায় অমনোযোগী।
এ কারনে শুক্রবার সকালে বাবা-মা তাদের স্নেহের সন্তানকে পড়াশোনায় মনোনিবেশ করার জন্য শাসন করলে, অভিমান করে অরবিন্দ্র বাড়ী ছেড়ে গা ডাকা দিয়ে থাকার পর শুক্রবার সারা রাত সম্ভাব্য সকল স্থানে খোজাখুজি করেও অরবিন্দ্রকে না পেয়ে দুশ্চিন্তায় ভেঙ্গে পড়ে। এ অবস্থায় আকস্মিক ভাবে তাদের কাছে সংবাদ আসে যে, অরবিন্দু বিষপান করে গজনীর অবকাশে পড়ে আছে। সেখান থেকে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে ঝিনাইগাতী হাসপাতালে নিয়ে এলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।
এ সংবাদে এলাকায় শেকের ছায়া নেমে আসে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত অরবিন্দুর শেষকৃর্ত্য করার আয়োজন চলছে বলে জানা যায়।