মেইন ম্যেনু

বাম পাঁজরে ব্যথা হতে পারে যেসব কারণে

বুকের খাঁচা বা পাঁজর বক্ষ গহ্বরে অবস্থিত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ ও টিস্যুকে রক্ষা করে। বেশিরভাগ মানুষই জীবনের কোন না কোন পর্যায়ে বাম পাশের পাঁজরে ব্যথা অনুভব করেন। বিভিন্ন কারণে এই ব্যথা হতে পারে। আঘাতের কারণে, মারাত্মক অসুস্থতার জন্য বা অন্তর্নিহিত কোন সমস্যার জন্য এই ব্যথা হতে পারে। চলুন জেনে নিই বাম পাঁজরে ব্যথা হওয়ার কারণগুলো সম্পর্কে।

১। অম্বল বা এসিড ফ্লাক্স

পাঁজরের বাম পাশে ব্যথা হওয়ার এটি একটি সাধারণ কারণ হচ্ছে অম্বল বা এসিড ফ্লাক্স। এসিডিক খাবার বা পানীয় অনেক বেশি গ্রহণ করলে হার্টবার্ন বা অম্বলের সৃষ্টি হয়। এই ব্যথা খুবই তীক্ষ্ণ হয় এবং কখনো কখনো একে বুকের ব্যথা হিসেবে ভুল করা হয়। পাকস্থলীর এসিডের ঘাটতির ফলে খাদ্য ভাংতে দেরি হয় ফলে পেটফাঁপার অনুভূতি হতে পারে।

২। প্লীহার জ্বালা

পাঁজরের বাম পাশে ব্যথা ও অস্বস্তিবোধ হতে পারে প্লীহার যন্ত্রণার কারণে। প্লিহা ক্ষতিগ্রস্থ হলে বাম কাঁধেও ব্যথা হতে পারে।

৩। বৃহদান্ত্রে গ্যাস হলে

কোলনে গ্যাস হলে তাকে Splenic flexure syndrom ও বলা হয়। কোলনে অতিরিক্ত গ্যাস আটকা পরলে বাম পাঁজরের নীচে ব্যথা হতে পারে। কোলনের গ্যাসের কারণে উদরের বাম পাশের উপরের অংশে ও বুকের খাঁচার নীচের অংশে ব্যথা হয়। বদহজম হয় এমন খাবার খেলে বৃহদান্ত্রে ব্যথার সৃষ্টি হতে পারে।

৪। কসটোকনড্রাইটিস

কার্টিলেজ বা তরুণাস্থির ইনফেকশনের ফলে কসটোকনড্রাইটিস হয়ে থাকে। পাঁজরের হাড়গুলোকে ব্রেস্টবোন বা স্টারনাম এর সাথে সংযুক্ত হতে সাহায্য করে কার্টিলেজ। ভাইরাসের সংক্রমণের ফলে কাঁধে ও পাঁজরে প্রচন্ড প্রভাব পরে। এর ফলে স্টার্নামে অসহ্য ব্যথা হয় এবং রোগী জোরে জোরে শ্বাস নেয়। এই ব্যথাকে অনেক সময় হার্ট অ্যাটাকের ব্যথা বলে ভুল করা হয়। শারীরিক পরীক্ষার মাধ্যমে এই রোগ নির্ণয় করা প্রয়োজন।

৫। পাঁজরের হাড় ভাঙ্গা

যদি পাঁজরের খাঁচার বাম পাশে আঘাত লাগে তাহলে পাঁজরের বাম পাশের নীচের অংশে প্রচন্ড ব্যথার সৃষ্টি হয় বিশেষ করে যখন গভীরভাবে দম নেয়া হয়। এক্সরে করার মাধ্যমে পাঁজরের হাড় ভাঙ্গা শনাক্ত করা যায়।

৬। নিউমোথোরাক্স

ফুসফুসের প্রাচীর ছিঁড়ে গেলে ফুসফুস অবসন্ন হয়ে পড়ে এবং ফুফফুস ও পাঁজরের খাঁচার মধ্যবর্তী স্থানে বাতাস লিক হতে থাকে। এর ফলে পাঁজরের খাঁচার নীচের অংশে ব্যথার সৃষ্টি হয়। এই ধরণের সমস্যায় দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া প্রয়োজন।

৭। পেটের আলসার

বাম পাঁজরের নীচের অংশে ধারালো ব্যথা হওয়া পেটের আলসারকে নির্দেশ করে। এই ব্যথা পাঁজর থেকে কাঁধেও ছড়িয়ে যেতে পারে। সমস্যার তীব্রতার উপর নির্ভর করে এই ব্যথা কয়েক মিনিট থাকতে পারে বা বিরতি দিয়ে পুনরায় আসতে পারে।

৮। আইবিএস (Irritable Bowel Syndrome)

যন্ত্রণাদায়ক পেটে সমস্যার ক্ষেত্রে পেটে ব্যথা, পেট ফাঁপা বা পেটে খিল ধরার সমস্যা হয়। এটি হলে পেটের বর্জ্যের স্বাভাবিক সঞ্চালন বাধাগ্রস্থ হয় ফলে আক্রান্ত ব্যক্তির উপর নির্ভর করে ডায়রিয়া বা কোষ্ঠকাঠিন্য হয়। বক্ষপাঁজরের নীচের অংশে তীক্ষ্ণ ব্যথা হয় যার ফলে অন্ত্রে বাধার সৃষ্টি হয়।

পাঁজরের বাম পাশের খাঁচায় ব্যথা হওয়ার আরো কিছু কারণ হচ্ছে- ডাইভারটিকুলাইটিস, প্যানক্রিয়াটাইটিস, ইন্টেস্টাইনাল ইনফেকশন, পেরিকারডাইটিস এবং অ্যানুরিজম (পেটের মহা ধমনীর ব্যবচ্ছেদ)ইত্যাদি। পাঁজরের বাম পাশের নীচের অংশের ব্যথার যেহেতু বিভিন্ন কারণ থাকতে পারে তাই এই ধরণের ব্যথাকে অবহেলা না করে দ্রুত চিকিৎসকের শরনাপন্ন হয়ে রোগ নির্ণয় ও নিরাময়ের সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিৎ।প্রিয়.কম