মেইন ম্যেনু

বালিয়াকান্দি থানা পুলিশের অভিযানে ইয়াবা ও মোটর সাইকেল সহ ব্যবসায়ী গ্রেফতার

রুহুল আমিন বুলু, রাজবাড়ী: সিলেটি পাথর , ধানের কুড়া ও বালু মিশিয়ে নকল সার ও কীটনাশক তৈরী, ফেনসিডিল, অপহরণ মামলায় গ্রেফতার হওয়ার পর জামিনে বেরিয়ে এসে পুনরায় শুরু করে ইয়াবা ব্যবসা।

বৃহস্পতিবার বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি-জামালপুর সড়কের বহরপুর ইউনিয়নের ইলিশকোল গ্রামের ফজলুল হক খোকা মিয়ার বাড়ীর সামনে থানা পুলিশের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে মোটর সাইকেলের মধ্যে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা ২৭ পিছ ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর মুন্সী (৪০) কে গ্রেফতার করেছে। তার পিতার নাম হাশেম মুন্সী। বাড়ী উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের যদুপুর গ্রামে।

বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহিদুল ইসলাম পিপিএম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার এ,এস,আই ইউসুফ হোসেন, এ,এস,আই আনিস, এ,এস,আই মেজবাহ উদ্দিন ইলিশকোল খোকার মোড়ে অভিযান চালিয়ে জাহাঙ্গীর মুন্সির মোটর সাইকেল গতিরোধ করা হয়। তার দেহ তল্লাশী করে ১২ পিছ ইয়াবা ও তার ব্যবহৃত ১০০ সিসি সিডিআই মোটর সাইকেল যশোর-এ-০২০৫৫৪ মধ্যে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা অবস্থায় আরো ১৫ পিছ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এব্যাপারে বালিয়াকান্দি থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়ের হয়েছে।

থানা হাজতে আটক থাকা জাহাঙ্গীর মুন্সি নিজেকে নির্দোষ দাবী করে। তাকে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ফাঁসানো হয়েছে বলে প্রকাশ করে।

উল্লেখ্য, জাহাঙ্গীর মুন্সী নিজবাড়ী যদুপুর গ্রামে গড়ে তোলে ভেজাল সার ও কীটনাশক কারখানা। ইতিপুর্বে বালিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল হাসান অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান ভেজাল সার ও কীটনাশক জব্দ করেন ও মামলা দায়ের করেন।

তার কিছুদিন না যেতেই ফেনসিডিলসহ পুলিশের হাতে ধড়া পড়ে। কিছুদিন জেল খেটে জামিনে বেরিয়ে আসলে পুনরায় অপহরন মামলায় মাগুড়া ডিবি পুলিশের সদস্যরা তাকে গ্রেফতার করে। সেখানে থেকে জামিনে বেরিয়ে এসে আবারও ইয়াবাসহ গ্রেফতার হলো। এছাড়াও জাহাঙ্গীর মুন্সি বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত বলেও অভিযোগ রয়েছে।