মেইন ম্যেনু

বাল্যবিয়ের শিকার স্পর্শিয়া

প্রথমবারের মতো গর্ভবতী নারীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন স্পর্শিয়া। এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘চরিত্রের প্রয়োজনে প্রথমে খাওয়া-দাওয়া করে অনেক মোটা হয়েছি। পরে এক মাসের মধ্যে আমাকে ছয় কেজি ওজন কমাতে হয়েছে। প্রচণ্ড শীত ও তাপদাহে শুটিং করেছি। টানা চার মাস অন্য কোথাও অভিনয় করিনি। নাটকটিতে আছে মা ও নবজাতক শিশুর যত্ন নিয়ে নানা শিণীয় বিষয়। অভিনয় ক্যারিয়ারে এ ধরনের অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হইনি।’ নাটকের নাম ‘উজান গাঙের নাইয়া’। নাটকে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন স্পর্শিয়া। বাশার জর্জিস ও গিয়াস উদ্দিন সেলিমের যৌথ পরিচালনায় বিটিভিতে সম্প্রতি নাটকটির প্রচার শুরু হয়েছে। সচেতনতামূলক ১৬ পর্বের ধারাবাহিকটিতে অল্প বয়সে গর্ভধারণের সমস্যাগুলো দেখানো হয়েছে। নাটকে স্পর্শিয়া আনিকা নামের ১৬ বছরের কিশোরীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। শহরে মামার বাসায় থেকে লেখাপড়া শেষ হলে গ্রামে মায়ের কাছে আসে আনিকা। স্বপ্ন ছিল আরো লেখাপড়া করে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর। কিন্তু বাল্যবিয়ের শিকার হয় সে। প্রতিবাদী আনিকা প্রতিনিয়তই যুদ্ধ করে যায় লেখাপড়ার জন্য। আর তাতেই সে শাশুড়ির কাছে অপ্রিয় হয়ে ওঠে। স্বামীও পরে বিশ্বাসঘাতকতা করে। আনিকা আর্লি প্রেগন্যান্সির ভিকটিম হয়। এভাবেই এগিয়ে যায় নাটকটির গল্প। এতে আরো অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, মামুনুর রশীদ, ফজলুর রহমান বাবু, দীপা খন্দকার, শ্যামল মাওলা, শিল্পী সরদার অপু, জুঁইসহ অনেকে।
স্পর্শিয়া বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে সব নাটকেই ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছি। ধারাবাহিক ইচ্ছে ঘুড়ি নাটকে শহরের অহঙ্কারী মেয়ে। ফ্যামিলি প্যাক নাটকে পরিবারের কনিষ্ঠ কন্যা, যে নিজের জগৎ নিয়ে ব্যস্ত থাকে, কাউকে কেয়ার করে না। আমাদের ছোট নদী চলে বাঁকে বাঁকে নাটকে গ্রামের প্রতিবাদী মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করছি। পাশাপাশি ঈদের একক নাটকেও কাজ করছি সমানতালে।