মেইন ম্যেনু

বাসি ইফতারি ও জালিয়াতি: পিজ্জাহাট-সাজনাকে জরিমানা

রমজান উপলক্ষে রাজধানীর বনানীতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে শনিবার দুপুরে খাদ্যে ভেজালবিরোধী অভিযান পরিচালিত হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট মশিউর রহমানের নেতৃত্বে বিএসটিঅাই পরিদর্শক শহীদুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে এই অভিযান পরিচালিত হয়। ভ্রাম্যমান অভিযানে বনানীর ১১ নাম্বার রোডে পিজ্জাহাট, মি এন্ড দি ও সাজনা রেস্টুরেন্টকে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। খাদ্যে ভেজাল, বাসি খাবার ও বিএসটিঅাইয়ের অবৈধভাবে সিল ব্যবহার করার দায়ে তাদের জরিমানা করা হয়।

বনানীর পিজ্জাহাটকে বিএসটিঅাইয়ের অনুমোদনহীন খাবার রাখার দায়ে এবং অবৈধ ভাবে বিএসটিঅাইয়ের লগো খাবারে ব্যবহারের কারণে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। মি এন্ড দি রেস্টুরেন্টকে বাসি ইফতারের খাবার রাখার দায়ে ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও সাজনা রেস্টুরেন্টকে অনুমোদনহীন দধি উৎপাদনের দায়ে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযান শেষে নির্বাহী ম্যাজিস্টেট মশিউর রহমান উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, ভ্রাম্যমান অাদালতের এটি একটি নিয়মিত অভিযান। তাছাড়া রমজানকে সামনে রেখে বিশেষ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। যাতে করে ভোক্তার অধিকার ও স্বাস্থ্য সম্মত খাবার পরিবেশনে ব্যবসায়ীরা সচেতন হন।

তিনি বলেন, অামাদের অভিযান সফল হচ্ছে এবং সাধারণ মানুষও এটাকে ভালভাবেই দেখছে। যারা খাদ্যে ভেজাল মিশিয়ে ও অস্বাস্থ্যকর খাবার বিক্রি করছে তাদের জন্য জেল জরিমানা একটি হুশিয়ারি বার্তা।

এ সময় ব্যবসায়ীদের সতর্ক করে তিনি বলেন, ভবিষ্যতে খাদ্যে ভেজাল না মিশিয়ে এবং স্বাস্থ্যসম্মত খাবার পরিবেশন করে ভোক্তার অধিকার সংরক্ষণ করুন। বেশি মুনাফা লাভের অাশায় খাদ্যে ভেজাল মিশাবেন না। তৈরি খাবারটা অাপনি খাবেন ও অাপনার পরিবার খাবে সেই চিন্তা ভাবনা করেই সাধারণ মানুষের কাছে খাবার বিক্রি করুন।

তিনি অারো বলেন, এই ধরনের অভিযান সব সময় অব্যাহত অাছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

এসময় বিএসটিঅাইয়ের পরিদর্শক মো. শহীদুল ইসলামও উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই