মেইন ম্যেনু

বাস্তবে সুপার পাওয়ারের অধিকারী যারা (ছবিসহ)

আমরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন সিনেমা ও কার্টুনে বিভিন্ন হিরো দেখতে পেয়েছি। যাদের প্রাকৃতিকভাবে কিছু শক্তি রয়েছে। যা সাধারণ মানুষের নেই। যাদের আমরা সুপার হিরো হিসেবে জানি। কিন্তু বাস্তবে কি সত্যি এরকম মানুষ আছে? হ্যাঁ, কিছু প্রাকৃতিক শক্তি সম্বলিত মানুষ পাওয়া গেছে, যাদের বাস্তবিক সুপার পাওয়ার রয়েছে। আজ তাদের নিয়ে আলোচনা করা হল।

po11

১. চুম্বকীয় মানব:
লাই থো লিন নামের ৭৮ বছর বয়সী এই মানুষের শরীরে যে কোন ধরণের লৌহ আকৃষ্ট হয়। চুম্বক যেভাবে লোহাকে টানে, ঠিক সেভাবে তার শরীরে বিভিন্ন ধরণের লোহার বস্তু লেগে থাকে। বিজ্ঞানীরা তাকে নিয়ে গবেষণা করে বিভ্রান্ত। তারা বুঝতে পারছেন না, তার শরীরের এই ম্যাগনেটিক শক্তি কোথা থেকে এসেছে।

po22

২. অনিদ্রারোগী:
থাই গক নামের ৬৪ বছর বয়সী ভিয়েতনামের এই ব্যক্তি ১৯৭৩ সালে একটি ফ্লুতে আক্রান্ত হবার পর থেকে আর কখনও ঘুমায় নি। তিনি এ পর্যন্ত ১১,৭০০ রাত না ঘুমিয়ে কাটিয়েছেন।

po33

৩. রাবার বয়:
৩৫ বছর বয়সী ড্যানিয়েল ব্রনিং স্মিথ সবচেয়ে নমনীয় মানুষ হিসেবে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম লিখিয়েছেন। তিনি তার হাত ও পা ১৮০ ডিগ্রি পর্যন্ত ঘুরাতে পারেন। তাকে নিয়ে চিকিৎসা বিজ্ঞানে অনেক জলঘোলা করা হচ্ছে।

po44

৪. ড্রিল মানব:

চায়নার পশ্চিম ও দক্ষিণের মিয়াঞ্জু শহরে যাও রুই নামের একজন ২৪ বছর বয়সী ব্যক্তি চলন্ত ড্রিল মেশিন তার মাথায় কয়েক সেকেন্ড পর্যন্ত লাগিয়ে রাখতে পারে। এতে তার মাথায় কোন ক্ষত হয় না। শুধুমাত্র একটি গাড় লাল চিহ্ন দেখা যায়।

po558

৫. লৌহ মানব:
মাইকেল লোতিত পৃথিবীর যে কোন জিনিস খেয়ে হজম করতে পারেন। আপনি যেকোনো কিছু তাকে খাবার হিসেবে দিতে পারেন। তিনি লোহা খেয়ে তা হজম করতে পারেন। তিনি ১৯৫৯ থেকে ১৯৯৭ সালের মধ্যে ১৮টি বাইসাইকেল, ১৫টি শপিং কার্ট, ৭টি টেলিভিশন, ২টি বিছানা, ৬টি ঝাড়বাতি, ১টি কফিন এবং ৪০০ মিটার ইস্পাতের চেইন খেয়েছেন। তিনি প্রথমে পানি পান করেন এবং পরে এসব অখাদ্য বস্তু খাওয়া শুরু করেন।–সূত্র: স্টোরিও।