মেইন ম্যেনু

পৌরসভা নির্বাচন

বিএনপির মনোনয়ন পেলেন যারা

আসন্ন পৌর নির্বাচনে একক প্রার্থীদের মধ্যে দলীয় মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু করেছে বিএনপি। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টা থেকে গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে পৌর মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু হয়।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও পৌর নির্বাচনে সমন্বয় কমিটির প্রধান মো. শাহজাহান দলীয় প্রার্থীদের মধ্যে মনোনয়নপত্র বিতরণ করেন।

ঢাকা বিভাগ ছাড়া অন্য সব বিভাগের প্রার্থীকে মনোনয়নপত্র বিতরণ করা হয়। বুধবার সকালে ঢাকা বিভাগের মনোনয়নপত্র বিতরণ করা হবে। তবে মনোনয়নপত্র বিতরণে গোপনীয়তা রক্ষা করে বিএনপি।

এদিকে সন্ধ্যার পর থেকে দীর্ঘ রাত পর্যন্ত গুলশান কার্যালয়ে দলীয় প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাশী ও তাদের অসংখ্য নেতা-কর্মীর ভিড় লক্ষ্য করা যায়।
মনোনয়ন পাওয়া নেতাদের সমর্থকদের মধ্যে উল্লাস করতে দেখা যায়।

মনোনয়নপত্র বিতরণের সময় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গুলশান কার্যালয়ে ছিলেন না। বিতরণের পর তিনি গুলশান কার্যালয়ে আসেন। রাতে বেগম জিয়ার সঙ্গে দেখা করেন দলের কারামুক্ত নেতা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মনোনয়নপত্র বিতরণের আগে সংক্ষিপ্ত সংবাদ ব্রিফিংয়ে মো. শাহজাহান বলেন, ‘গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল হিসেবে পৌর নির্বাচনকে আমরা রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করেছি। এই চ্যালেঞ্জ শুধু দলের জন্য নয়, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার চ্যালেঞ্জ, মানুষের ভোটাধিকার ফিরে পাওয়ার চ্যালেঞ্জ, ভোটকেন্দ্রে অবাধে ভোটাধিকারের পরিবেশ তৈরি করার চ্যালেঞ্জ। আমরা কোনো শর্ত দিয়ে নির্বাচনে যাইনি। আমরা রাজনৈতিক চ্যালেঞ্জ হিসেবে ভোটে অংশ নিচ্ছি। এই চ্যালেঞ্জ নিয়ে আমরা মাঠে থাকব।
তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন ও সরকার আমাদের মাঠে থাকার যে ইচ্ছা তা শেষ পর্যন্ত, দয়া করে আমাদেরকে মাঠ থেকে সরিয়ে দেবেন না। আমরা নির্বাচনের মাঠে থেকে জনগণ কী চায়, তা যেন আমরা যাচাই করতে পারি।’ নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশে যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের নেতা-কর্মী ও প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করতে গিয়ে যেন হয়রানির মুখে না পড়ে। নেতা-কর্মী যারা আটক রয়েছেন, তাদের জামিনের ব্যবস্থা করবেন। গণগ্রেফতার বন্ধ করবেন।
জোটের শরিকদের জন্য কতটি আসন দিচ্ছেন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘এখানে সংখ্যা আমরা বলতে চাই না। এই নির্বাচনে বিএনপি তার শরিকদের নিয়ে অংশ নেবে। শরিকরা কেউ চাইলে তাদের বিমুখ করব না। প্রত্যাহার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’
জামায়াতে ইসলামী ধানের শীষের নির্বাচন করবে কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে মো. শাহজাহান বলেন, ‘এটা ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। জামায়াতে ইসলামীর নিজস্ব রাজনীতি আছে। তার কী কৌশল হবে, কী প্রক্রিয়ায় তারা নির্বাচনে অংশ নেবে, সেটা তাদেরই ভাবতে দেওয়া উচিত।’

এ সময় জাপা (কাজী জাফর) সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আহসান হাবিব লিংকন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, সাবেক এমপি ওয়াদুদ ভুঁইয়া, শামীমুর রহমান শামীম, আসাদুল করীম শাহিন, তাইফুল ইসলাম টিপু, বেলাল আহমেদ, মাহবুবুর রহমান শামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মনোনয়ন পেলেন যারা

পঞ্চগড় : সদরে তৌহিদুল ইসলাম,
ঠাকুরগাঁও : সদরে মির্জা ফয়সাল আমিন,
দিনাজপুর : ফুলবাড়িতে শিল্পী,
চাঁপাইনবাবগঞ্জ : রহনপুরে নূরুল আলম তকি,
রাজশাহী : কাকনহাটে ইসমাইল হোসেন খান, গোদাগাড়িতে আনোয়ারুল ইসলাম, তানোরে মিজানুর রহমান, কাটাখালীতে মাসুদ রানা, মুণ্ডুমালায় মোজাম্মেল হক, কেশরহাটে আলাউদ্দিন আলো, নওহাটায় শেখ মকবুল হোসেন,
গাইবান্ধা : সদরে শহীদুল্লাহ শহীদ, সুন্দরগঞ্জে ফারুক আহমেদ,
বগুড়া : সদরে অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান, নন্দীগ্রামে সুশান্ত, কাহালোতে আবদুল মান্নান, শেরপুরে স্বাধীন কুণ্ডু, গাবতলীতে সাইফুল ইসলাম,
সিরাজগঞ্জ: উল্লাপাড়ায় বেলাল হোসেন,
সাতক্ষীরা: সদরে তাসকীন আহমেদ চিশতী, কলারোয়ায় গাজী আক্তারুল ইসলাম,
বরগুনা : সদরে এস এম নূরু, বেতাগীতে হুমায়ুন কবীর মলি­ক, পাথরঘাটায় আকবর মলি­ক,
বরিশাল : গৌরনদীতে মুকুল,
ময়মনসিংহ : ত্রিশালে আমিনুল ইসলাম, নান্দাইলে পিকুল,
নরসিংদী : মনোহরদীতে মাহমুদুল হক সারোয়ার,
ফেনী : সদরে ফজলুর রহমান বকুল, পরশুরামে মোস্তাহিদুল ইসলাম মাসুদ,
নোয়াখালী : বসুরহাটে কামাল চৌধুরী, বেগমগঞ্জে হারুন অর রশীদ, হাতিয়ায় আবদুর রহিম,
চট্টগ্রাম : বন্দর নগরী চট্টগ্রামে মনোনয়ন পাওয়া নেতারা হলেন, স›দ্বীপে আজমত আলী বাহাদুর, বাঁশখালীতে কামরুল ইসলাম হোসাইনী, সাতকানিয়ায় রফিকুল আলম, মিরসরাইয়ে রফিকুল ইসলাম পারভেজ, রাউজানে আবদুল্লাহ আল হাসান, বারইয়ারহাটে মাইনুদ্দিন লিটন, রাঙ্গুনিয়ায় হেলাল উদ্দিন, সীতাকুণ্ডে আবুল মনসুর, পটিয়ায় তহিদুল আলম।
এ ছাড়া চন্দনাইশে এলডিপির প্রার্থীর জন্য ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
খাগড়াছড়ি : খাগড়াছড়ি সদরে আবদুল মালেক ও মাটিরাঙ্গায় বাদশা মিয়া,
বান্দরবান : সদরে জাবেদ রাজা ও লামায় আমির হোসেন,
রাঙামাটি : সদরে সাইফুল ইসলাম ভুট্টো,
কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মহিউদ্দিনকে মনোনয়নপত্র দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও অন্যান্য পৌরসভায় দলীয় প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দেয়া অব্যাহত রয়েছে বিএনপির।