মেইন ম্যেনু

বিএনপির মহাসচিবকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে রাতের অন্ধকারে টাকার বিনিময়ে মনোনয়ন

খাদেমুল মোরসালিন শাকীর, কিশোরগঞ্জ থেকেঃ নীলফামারী কিশোরগঞ্জে বিএনপিতে মনোনয়ন বানিজ্যের ফাঁদে আটকে গেল কিশোরগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়ন বিএনপির মনোনিত প্রার্থী হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গ্রেনেট বাবু।

উপজেলার তৃণমূল পর্যায় থেকে যাচাই বাচাইয়ের মাধ্যমে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গ্রেনেট বাবুকে গত ৪এপ্রিল জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সামসুজ্জামান জামানের মাধ্যমে দলীয় প্যাডে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর’র স্বাক্ষরিত অনুমতি পত্র পাঠিয়ে দেন। সেই আলোকে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গ্রেনেট বাবু ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার পূর্বে জানতে পান যে, এ কে এম তাজুল ইসলাম ডালিমকে কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অর্থের বিনিময়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য বিলকিছ ইসলাম স্বপ্না ও কেন্দ্রীয় যুবদলের সহঃ সভাপতি ফরহাদ হোসেন আজাদসহ যাচাই বাচাই না করে দলের মহাসচিবকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে রাতের অন্ধকারে টাকার বিনিময়ে মনোনয়ন দেন।

সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা পাটোয়ারী বলেন, এই ইউপি নির্বাচনে বিএনপিকে ভরাডুবির করার লক্ষ্যে টাকার বিনিময়ে ডালিমকে মনোনয়ন দেন। আমরা প্রয়োজন হলে বিএনপি থেকে বেরিয়ে আসবো। মূলদল ছাড়াও স্বেচ্ছাসেবক দল, কৃষক দল ও তাঁতীদলসহ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের নেত্রী তৃণমুল পর্যায়ে হাজারো মানুষের গরীব দুঃখীর পছন্দের মানুষকে মনোনয়ন না দেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাধারণ মানুষ। হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গ্রেনেট বাবু বলেন,তৃণমূল পর্যায় থেকে সর্বস্তরের নেতা কর্মীসহ মরহুম বাচ্চা মিয়ার চাতালে বর্ধিত সভায় আমাকে মনোনয়ন দেন। আমাকে রেজুলেশন করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা ও ইউনিয়ন কমিটি জেলা পর্যায়ে সুপারিশ পাঠিয়ে দিলে জেলা কেন্দ্রীয় কমিটিতে পাঠালে আমাকে মহাসচিব দলীয় প্যাডে লিখিত মনোনয়ন দেন।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যাপক রাজ্জাকুল ইসলাম রাজার সাথে কথা হলে তিনি জানান, ৪তারিখে কেন্দ্রীয় কমিটিতে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর নাম ছিল। পরে আমি ৬ তারিখে জানতে পারলাম যে আমাদের নাকি কেন্দ্রীয় কমিটিতে নতুন করে ডালিমের নাম আসছে।

এ বিষয়ে নীলফামারী জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা রঞ্জুর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, দলের মহাসচিব হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীকে মনোনয়ন দিয়েছেন তিনিই বিএনপির মনোনীত প্রার্থী।