মেইন ম্যেনু

বিএনপি নেতা আসলামকে পেলেই গ্রেপ্তারের ঘোষণা

ভারতে ইসরাইলী গোয়েন্দা সংস্থা ‘মোসাদ’র এজেন্টের সাথে ‘সরকার উৎখাতের বৈঠকের’ অভিযোগে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীকে পেলেই গ্রেপ্তার করা হবে বলে জানিয়েছেন সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার।

রোববার বেলা ১২টার দিকে সিএমপিতে বিট পুলিশিং কার্যক্রম উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে কমিশনার এ তথ্য জানান।

তিনি বলেছেন, ‘ইতোমধ্যে তার দেশ ত্যাগে স্থল, নৌ ও বিমানবন্দরে নিষেধাজ্ঞা জারি করে চিঠি দেয়া হয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তাকে আমরা পেলেই গ্রেপ্তার করব।’

অভিযোগ আছে, বিএনপি রাজনীতিতে খুবই অল্প সময়ে পাকাপোক্ত অবস্থানে আসলাম চৌধুরী। ২০০১ সালে চারদলীয় জোট ক্ষমতায় এলে জিয়া পরিষদের মাধ্যমে বিএনপির রাজনীতিতে আসেন তিনি।

২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে আসলাম চৌধরী সীতাকুণ্ড আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী হয়ে পরাজিত হন। তবে দলে তার প্রভাব দ্রুত বাড়তে থাকে। তিনি চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হন। এর কয়েক বছর যেতে না যেতে ২০১৪ সালের ২৬ এপ্রিল তিনি উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক হন। আর সম্প্রতি বিএনপির কেন্দ্রীয় সম্মেলন শেষে হন দলের যুগ্ম মহাসচিব।

এর আগে ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারি নগরীর নাসিমন ভবনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের পর গ্রেপ্তার হয়েছিলেন আসলাম চৌধুরী। সাড়ে পাঁচ মাস কারাবন্দি থাকার পর ওই বছরই ১৫ জুন বিকেলে জামিনে মুক্তি পেয়েছিলেন তিনি। মুক্তি পাওয়ার পর ওইদিন বিকেলে আবারও কারাফটক থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দায়ের হওয়া সন্ত্রাসবিরোধী আইনের একটি মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানোর জন্য পুলিশ আবেদন করলেও আদালত তাকে জামিন দেন। বর্তমানে তিনি আত্মগোপনে আছেন।