মেইন ম্যেনু

বিএনপি ভয়কে জয় করতে পারে না : ওবায়দুল কাদের

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি আসলে নিজেরাই নিজেদের বাধা। বিএনপির প্রার্থীরা নাকি পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তারা পালিয়ে বেড়াচ্ছে কেনো? ভয়ে। ভয়কে যারা জয় করতে পারে না, ভয়কে জয় করার সাহস বিএনপি নেই। সে জন্য তারা ভয়ের কারণে বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে। কে কাকে বাধা দেবে।

শনিবার দুপুরে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার রসুলপুর এলাকায় বেঙ্গল ফিড অ্যান্ড ফিশারিজ লিমিটেডের কারখানার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

দেশের প্রথম দফায় দলীয় প্রতীকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১১৪ ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা দানে বিএনপির অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি মন্ত্রী বলেন, বিএনপির প্রার্থীরা বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছেন কি হচ্ছে না এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার মালিক নির্বাচন কমিশন। আচরণবিধি কোথাও লঙ্ঘন হচ্ছে কিনা তা দেখার বিষয় নির্বাচন কমিশনের।

মন্ত্রী বলেন, ৭৩৮টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ১৪৪টি সস্পর্কে বিএপির অভিযোগ। বাকিগুলো কি হলো। আসলে তাদের স্পষ্ট কোনো অভিযোগ নেই। স্পেসেসিকভাবে তারা বলুক আওয়ামী লীগ জড়িত তাহলে নির্বাচন কমিশনের পাশাপাশি আমরাও দলীয়ভাবে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

দলীয় প্রতীকের নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নিবন্ধিত সব দলের অধিকার আছে নির্বাচনে অংশগ্রহণের। সেখানে আমরা বিএনপিকে বাধা দেবো কেনো? যেখানে দলীয় প্রতীকে নির্বাচন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্ভাবন। তিনিই দলীয় প্রতীকের নির্বাচনে ব্যাপারে প্রথম থেকেই অবিচল ছিলেন। আমাদের দলের ভেতরে ও অনেকের এ ব্যাপারে সাহস কম ছিলো।

তিনি আরো বলেন, তারা (বিএনপি) জাতীয় নির্বাচনে আসেনি, আন্দোলনেও আসেনি। এটি তাদের ব্যর্থতা। ধানের শীষের কথা মানুষ ভুলেই যেতে বসেছে। অনেকে নেত্রীকে বলেছেন মানুষ যা ভুলে যেতে বসেছেন সে প্রতীককে কেনো আবার মাঠে এনেছেন। শেখ হাসিনা বলেছেন- আমি রাজনীতি করি। তারা নিবন্ধিত দল। আজ তারা দলীয় প্রতীক পেয়ে মাঠে প্রার্থী দিচ্ছে, স্লোগান দিচ্ছে আর এ কৃতিত্ব শেখ হাসিনার।

তিনি আরো বলেন, বড় দলের বড় সাহস থাকতে হয়। না থাকলে ক্রমে সংকুচিত হয়ে পড়ে। বিএনপির আজকে বড় সংকট হচ্ছে সাহসের সংকট। একটি আন্দোলন গত ৮ বছরে তারা করতে পারেনি।

নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রাথী সর্ম্পকে তিনি বলেন, পৌর নির্বাচনের মতো ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ও দলীয় প্রতীক নৌকার বাইরে গিয়ে কেউ ভোট করলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।