মেইন ম্যেনু

বিক্রি হচ্ছে কোটি কোটি হ্যাক হওয়া পাসওয়ার্ড, আপনারটিও হচ্ছে না তো?

হ্যাক করা পাসওয়র্ড, ইমেল আইডির ঢালাও বিক্রি চলছে ডার্ক ওয়েবে। প্রায় ৬ কোটি ৮০ লক্ষ পাসওয়র্ড রয়েছে এই তালিকায়।

ইন্টারনেট ব্যবহারের বিপজ্জনক দিকটি আবারও সামনে এল। পাসওয়র্ড হ্যাকিং এই দুনিয়ার নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার। ইমেলের পাসওয়র্ড যদি এসে যায় কারও হাতের মুঠোয় তবে সমস্ত ব্যক্তিগত ছবি, ব্যাংকিং ট্রানজাকশন থেকে শুরু করে অফিসিয়াল ডকুমেন্টসের সফট কপি সবই চলে আসবে তার হাতে। ইন্টারনেটের পাসওয়র্ড শুধু হ্যাকই হয় না, বিক্রিও হয় চড়া দামে।

সম্প্রতি ইন্টারনেটের ভাঁজে লুকিয়ে থাকা ‘ডার্ক ওয়েবে’ ঢালাও বিক্রি হচ্ছে প্রায় ৬ কোটি ৮০ লক্ষ ড্রপবক্স অ্যাকাউন্টের ইমেল লগইন এবং এনক্রিপ্টেড পাসওয়র্ড। এই বিপুল পরিমাণ ডেটা কীভাবে হ্যাক হল তা এখনও জানা যায়নি। শোনা যাচ্ছে এই ডেটার আবার বিভিন্ন প্রাইস রেঞ্জ রয়েছে। ন্যূনতম ১১৪১ ডলার খরচ করলেই কেনা যাবে ডেটার একটি অংশবিশেষ।

কিন্তু এই বিপুল সংখ্যক ডেটা পাওয়া গেল কোথা থেকে? এই পুরো ডেটাই ‘ড্রপবক্স’ ক্লাউড স্টোরেজের। ২০১২ সালে, যখন ‘ড্রপবক্স’ ক্রমশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে কর্পোরেট এবং আইটি সেক্টরে, সেই সময়েই হ্যাক করা হয় বিপুল পরিমাণ ইউজার এবং পাসওয়র্ড। সেই ডেটাই এখন ডার্ক ওয়েবে বিক্রি চলছে। অনেকেই হয়তো ড্রপবক্স এখন আর ব্যবহার করেন না কিন্তু চিন্তার বিষয়টি অন্য।

দেখা গিয়েছে যে বহু ইউজার ড্রপবক্সে যে মেলআইডি ব্যবহার করেন সেই একই মেলআইডি রয়েছে তাঁদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে। তাই হ্যাকারদের হাতে এই আইডির পাসওয়র্ড যাওয়া মানে বিপদ আসতে পারে বহুদিক থেকেই।