মেইন ম্যেনু

বিজিবি সদস্যের ছেলেকে গলাকেটে হত্যা

মিনহাজ কাজী (১৫) নামে এক অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্যের স্কুলপড়ুয়া ছেলেকে গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। রোববার রাতে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর রাতের কোনো এক সময় তাকে হত্যা করে লাশ ফেলে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে সোমবার বেলা ১১ টার দিকে গোপালগঞ্জ জেলা শহরের তেঘরিয়া এলাকা থেকে পুলিশ ওই ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে।

মিনহাজ কাজী শহরের স্বর্ণকলি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্র ও সদর উপজেলার জগাচ্চর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য সাহেব আলি কাজীর ছেলে। তারা জেলা শহরের তেঘরিয়া এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতো।

নিহত স্কুলছাত্রের বাবা সাহেব আলি কাজী জানান, মিনহাজ রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। পরে অনেক রাতেও সে বাড়ি ফিরে না আসায় তাকে বিভিন্ন স্থানে খুঁজে তারা পাননি। পরে সোমবার সকালে বাড়ির ৫শ’ গজ দূরে নির্মণাধীন সাহেরা খাতুন মেডিকেল কলেজের পাশে তার গলাকাটা লাশ দেখতে পান। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে তদন্ত শুরু করেছে। এখনো হত্যার কারণ জানতে পারেনি পুলিশ।

গোপালগঞ্জের অতিরিক্তি পুলিশ সুপার শেখ জাহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাকির হোসেন মোল্যা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।’



(পরের সংবাদ) »