মেইন ম্যেনু

বিতর্ক ছাড়াই পাকিস্তানে ‍মুক্তি পেল ‘উড়তা পাঞ্জাব’

ভারতে যা বিতর্ক উঠেছিল, পাকিস্তানে তার বিন্দুমাত্র উঠল না। পাকিস্তানে মুক্তি পেতে পলেছে উড়তা পঞ্জাব। তবে কিনা এর পেছনে একটা তথ্য আছে। ১০০ বার কাটের পরই ছবিটিকে দেখানোর ছাড়পত্র দিয়েছে সে দেশের সেন্সর বোর্ড। তাও আবার A সার্টিফিকেট সহ।

সাধারণ যে পাকিস্তান সংক্রান্ত যাবতীয় কিছু, ৭৮৬ শব্দটি এবং কিছু অশালীন সংলাপ কেটে দেয়া হয়েছে। এছাড়া ছবির কিছু কিছু জায়গায় বিপ এবং মিউটও জুড়ে দেয়া হয়েছে। তবে পঞ্জাব শব্দটির উপর কাঁচি পড়েনি।

যুবসমাজের নেশার আসক্তি নিয়ে তৈরি করা হয়েছে উড়তা পঞ্জাব। ছবিটি সেন্সর বোর্ডের রোষানলে পড়লেও মুম্বাই হাইকোর্ট ছবিটিকে মুক্তির অনুমতি দেয়। সেন্সর বোর্ড যেখানে ৮৯টি কাটের কথা বলেছিল, সেখানে হাইকোর্ট মাত্র একটি কাটের পর সার্টিফিকেট দেয় উড়তা পঞ্জাবকে। ছবিটি প্রথমদিন অসাধারণ কিছু ব্যবসা না করলেও একেবারে মুখ থুবড়ে পড়েনি। আশঙ্কা তো ছিলই। কারণ মুক্তির আগেই অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছিল অভিষেক চৌবের এই ছবিটি। তারপর অবশ্য সেগুলি তুলে নেয়া হয়।

পঞ্জাব শব্দটি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিল সেন্সর বোর্ড। সেই পঞ্জাবের সিনেমাহলগুলিতে উড়তা পঞ্জাব নিয়ে কোনো হিংসাত্মক মনোভাব প্রকাশ পায়নি।

উড়তা পঞ্জাব এখন ভালোই ব্যবসা করছে। পঞ্জাব তো বটেই, দেশের অন্য সিনেমাহলগুলিতেও উড়তা পঞ্জাব উড়ছে সানন্দে।