মেইন ম্যেনু

বিদায় নিলেন ক্যামেরন, থেকে গেল আদরের বিড়াল ল্যারি

পদত্যাগ করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। ইতিমধ্যে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন তারই মন্ত্রিসভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদে থাকা টেরেসা মে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন ১০ নং ডাউনিং স্ট্রিট থেকে সপরিবারে বিদায়ও নিয়েছেন ক্যামেরন। ৬ বছর ৬২ দিন প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে কাটিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার ক্যামেরনের বাসভবনের বাইরে পৌঁছে যায় তার ঘরকন্নার জিনিসপত্র। সেগুলো নিয়ে যাওয়ার জন্য আসে নীল রঙের একটি ভ্যান। স্ত্রী ও তিন সন্তানকে নিয়ে ক্যামেরন এখন কোন বাড়িতে থাকবেন তা নিয়ে চলছে নানা জল্পনা। কারণ লন্ডনে তার নিজের বাসভবন তিনি দীর্ঘ মেয়াদের জন্য ভাড়া দিয়েছেন।

তার পদত্যাগের ঘটনাটি যেহেতু ঘটল অপ্রত্যাশিতভাবে তাই তার লন্ডনের বাসভবনে তিনি এখনই গিয়ে উঠতে পারছেন না। আর নিয়ম অনুযায়ী ক্যামেরনকে তার সরকারি বাসভবন খালি করে দিতে হবে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে। তবে এতকিছুর মধ্যেও সবেচেয়ে বেশি করে আলোচনায় এসেছে ডাউনিং স্ট্রিটের পোষা বিড়াল ল্যারির কথা।

2016_07_14_15_48_00_GXhhJybRTBzU1wXKdN0XI6UJqsW7V0_original

২০১১ সালে ডাউনিং স্ট্রিটে ইঁদুরের উৎপাত বন্ধ করার জন্য ল্যারিকে নিয়ে আসা হয়েছিল। ক্যামেরন তার ব্যক্তিগত বিষয় সম্পত্তি সব নিয়ে গেলেও রেখে যাচ্ছেন প্রায় ৫ বছরের পোষা বিড়াল ল্যারিকে। ল্যারি পাচ্ছে নতুন মনিব, নতুন প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে’কে।

প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, ল্যারি বিড়াল হলে কী হবে- সে তো সরকারি কর্মী। সে ডাউনিং স্ট্রিটেই তার কাজে বহাল থাকবে। শুধু কাজ করবে অন্য প্রভুর অধীনে।