মেইন ম্যেনু

বিদেশে যাচ্ছেন? সাবধান, নিজের ফোনের কারণে ঝামেলায় পড়তে পারেন!

আপনি যদি বিদেশে যাওয়ার পরিকল্পনা করেন, তাহলে নিজের স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটের ব্যাপারে সতর্ক হোন। স্মার্টফোনের কারণে গত ৩ মাসে সৌদি আরবের ৬০ জন শিক্ষার্থী কঠিন শিক্ষা পেয়েছেন। আমেরিকায় বিমানবন্দরে পৌঁছার পর তাদের ভিসাই বাতিল করা হয়েছে। সেখানকার কর্তৃপক্ষ তাদের মোবাইল ফোনে সন্দেহজনক কিছু পেয়েছিল।

নিজের মোবাইল ফোনে পর্ণোগ্রাফি বা লোমহর্ষক অপরাধের কিছু রাখার ঝুঁকি সম্পর্কে অনেক মানুষই সচেতন। এটা শুধু বিদেশে নয়, দেশের ভেতরেও আপনাকে ঝামেলায় ফেলতে পারে। এমনকি মোবাইলে ধর্মীয় কোন কিছু থাকলেও, অন্য দেশের বিমানবন্দরে তার ভুল ব্যাখ্যা দাঁড় করাতে পারে সেখানকার কর্তৃপক্ষ।

এবার কুয়েতের প্রসঙ্গে আসি। সপ্তাহ দুয়েক আগে কুয়েত সরকার তার নাগরিকদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, আমেরিকা ভ্রমণ করার আগে নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে যে- মোবাইলে এমন কিছু যেন না থাকে যার সাথে কোনভাবে আইএস’কে সম্পৃক্ত করা যায়। গত জুলাইতে আমেরিকার লস এঞ্জেলেস বিমানবন্দরে কুয়েতের কয়েকজন ব্যবসায়ীকে ২১ ঘন্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের মোবাইলে সন্দেহজনক কিছু থাকায় তাদেরকে শেষ পর্যন্ত আমেরিকায় ঢুকতে দেয়া হয়নি।

এমন নয় যে, শুধু আমেরিকা ভ্রমণের ক্ষেত্রেই সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। যুক্তরাজ্যেও ২০১৩ সাল থেকে বর্ডার পুলিশকে যাত্রীর মোবাইল ফোন জব্দ করে তা থেকে সব ধরণের ডাটা কপি করে নেয়ার ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া ঢুকতে গেলেও প্রায় একই নিয়ম। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে যাত্রীর মোবাইল ফোন এমনকি কম্পিউটার পর্যন্ত জব্দ করার ক্ষমতা দেয়া আছে। সুতরাং সাবধানতা ব্যক্তিকেই অবলম্বন করতে হবে। কারণ, কোন ব্যক্তির স্মার্টফোন বা ট্যাবে কি আছে, তার দায় ঐ ব্যক্তিকেই নিতে হবে।