মেইন ম্যেনু

বিদ্যুতের দাম বাড়ানো অযৌক্তিক

বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমলেও দেশে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোকে অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করেছে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে আইভি রহমানকে স্মরণ ও চলমান রাজনীতি বিষয়ে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুরঞ্জিত বলেন, ‘বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে জ্বালানি তেলের প্রয়োজন। সারা বিশ্বে যখন জ্বালানি তেলের দাম অবিশ্বাস্য হারে কমেছে, সেখানে বাংলাদেশে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হলো কেন? আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানির দাম কমলেও আমাদের দেশে তা বৃদ্ধি পাবে এটা অস্বাভাবিক, এর কোন যৌক্তিকতা নেই।’

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়লে বিদ্যু‍ৎ উৎপাদনে খরচ বেড়ে যায়। আপনারা তখন বিদ্যুতের দাম বাড়ান। কিন্তু বর্তমানে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমেছে। এমন অবস্থায় আপনারা বিদ্যুতের দাম বাড়াতে পারেন না। এক দেশে দুই আইন চলতে পারে না। এটা ন্যায়বিচার পরিপন্থি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দাম পুনবিন্যাসের জন্য বিষয়টিকে পুনর্বিবেচনা করা প্রয়োজন। কেননা জ্বালনির দাম বাড়লে সবকিছুর দাম বাড়বে।’

মহাজোটের ভাঙন নিয়ে বিভিন্ন মহলের গুঞ্জন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আগস্ট মাসে আওয়ামী লীগের আবেগ রয়েছে। এই গুঞ্জন হচ্ছে সেই আবেগ। মহাজোট ভাঙবে না।’

‘প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষরযন্ত্র চলছে’ গণমাধ্যম ও বিভিন্ন মহলের এমন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে সুরঞ্জিত বলেন, ‘আশির দশক ও বর্তমান সময়ের মধ্যে অনেক তফাত রয়েছে। আশির দশকে হত্যার রাজনীতি করে সরকার পরিবর্তন করা যেত, এখন যায় না।’

জনমত এখন মহাজোট সরকারের পক্ষে বলেও মন্তব্য করেন সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত।

বঙ্গবন্ধু একাডেমী আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপত্বি করেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম -সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা ৭নং আসনের সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিম।