মেইন ম্যেনু

বিনোদন কেন্দ্রে বিনোদন পিপাসুদের উপচেপড়া ভিড়

রাজশাহী : ঈদ-উল-ফিতরের দিন থেকে রাজশাহীর বিনোদন স্পটগুলোতে বিনোদন পিপাসুদের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। যদিও সকালের দিকে বৃষ্টি হয়েছে। তার পরেও বৃষ্টি উপেক্ষা করে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে মানুষের ঢল নামে।

এক মাস সিয়াম সাধনার ক্লান্তি আর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে এক হতে পেরে কিছুটা আনন্দ লাভের জন্য মানুষ বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে যাচ্ছেন।

বিনোদন পিপাসুরা ঘর ছেড়ে বেরিয়ে পড়ায় রাজশাহী শহরে বেড়ানোর অন্যতম বাহন রিকশা ও অটোরিকশার কদর এখন তুঙ্গে। এই সুযোগে মানুষের কাছ থেকে দ্বিগুণেরও বেশি ভাড়া নিচ্ছেন রিকশা ও অটোরিকশা চালকরা।

বিনোদন পিপাসুদের কোলাহলে মুখরিত হয়ে উঠেছে নগরীর শহীদ কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানা, শহীদ জিয়া শিশু পার্ক, আইটি-বাঁধ, বড়কুঠি, শিমলা পার্ক, পদ্মা গার্ডেন, ভদ্রা পার্কসহ বিভিন্ন বিনোদন স্পট।

শহীদ জিয়া শিশু পার্কে বেড়াতে আসা রবিউল ইসলাম ও শারমীন সুলতানা দম্পতি জানালেন, তারা দ্জুনই চাকরিজীবী। তারা জানালেন, ইট-পাথরের ছকে বাধা নগরজীবনে শিশুদের একটু বিনোদন দিতে পার্কে আসা। তাদের তিন বছরের শিশুকন্যা মহিমা ও পাঁচ বছরের ছেলে সাফাত দুজনেই বেজায় খুশি। দুজনেই মজা করছে বিভিন্ন রাইডে। তবে বিভিন্ন রাইডে টিকিটের হার বেশি নেয়া হচ্ছে বলে তারা অভিযোগ করেন।

রাজশাহী নগরীর অন্যতম বিনোদন স্পট পদ্মার পাড়। পদ্মার পাড়ে বেড়াতে এসেছেন নগরীর হড়গ্রাম এলাকার কলেজ শিক্ষার্থী নয়ন ও শামীম। তারা বললেন, বছরের অন্য সময়েও পদ্মার পাড়ে আসি। কিন্তু এ সময়ে আনন্দটা একটু ভিন্ন ধরনের। সবাই মিলে মজা করার অনুভূতিই আলাদা।

একইভাবে নগরীর অন্য বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অনেকেই আনন্দ করছেন। অনেকে আবার আড্ডা জমিয়েছেন বন্দুদের সঙ্গে। এভাবেই এখনো কয়েকটা দিন সকলের কাটবে ঈদ আনন্দে।